• Breaking News

    গ্যাটলিন পৌঁছতে পারলেন না ২০০ মিটার ফাইনালে, বোল্ট বললেন ‘বুড়ো’!

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক

    gatlin1

    উসেইন বোল্টের অষ্টম সোনা পাওয়া নিয়ে আর কোনও সন্দেহ রইল না বোধহয়!

    যাঁকে তাঁর সেরা প্রতিদ্বন্দ্বী ধরা হচ্ছিল, জাস্টিন গ্যাটলিন যোগ্যতার্জন করতে পারলেন না ২০০ মিটার ফাইনালে ট্র্যাকে থাকার।

    সেমিফাইনাল হিটে তৃতীয় হলেন আমেরিকান গ্যাটলিন। ৩৪ বছর বয়সী স্প্রিন্টার রুপো জিতেছিলেন ১০০ মিটার দৌড়ে। ২০০ মিটারে ভাবা হয়েছিল, আবারও বোল্টকে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে ফেলবেন। কিন্তু সেরা আটেই থাকতে পারলেন না, ২০.১৩ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে!

    ‘খারাপ লাগছে পারিনি বলে। আবার, এখনও টিকে আছি, রিলে-তে দৌড়ব, ভেবে ভালও লাগছে। সব শেষ হয়ে যায়নি এখনও। গোড়ালির চোটে ভুগছি। ঠিকঠাক দৌড়তে পারিনি। গোড়ালির ওই অবস্থায় বেশ কঠিন ছিল তিন নম্বর লেনে ২০০ মিটার দৌড়নো’, বলেছেন গ্যাটলিন।

    দুবার ডোপ-পরীক্ষায় ধরা পড়ে নির্বাসিত হয়ে ফিরে এসে বোল্টের সেরা প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছিলেন, যা গ্যাটলিনের কাছে যথেষ্ট কৃতিত্বের। বোল্টের সঙ্গে এই প্রতিদ্বন্দ্বিতা উপভোগ করেছেন জানিয়ে গ্যাটলিনের মন্তব্য, ‘দর্শকদের প্রতিক্রিয়া হয়ত নেতিবাচক। কিন্তু কিছু মনে করিনি। আরে বাবা, বোল্টের জন্য চিৎকার করতে গিয়ে কাউকে তো বিদ্রুপ করতেই হত! আমিই না হয় ছিলাম সেই ভূমিকায়!’

    বোল্ট ২০০ মিটার সেমিফাইনালও শেষ করলেন শীর্ষে থেকে, ফিনিশিং লাইন-এর কাছে এসে আর এক প্রতিদ্বন্দ্বী আন্দ্রে দে গ্রাসের দিকে তাকিয়ে হাসতে হাসতেই। পরে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে বললেন, ‘আন্দ্রের উচিত ছিল শেষদিকে এসে আস্তে দৌড়নো। তা করেনি দেখে হেসে বলেছিলাম, কী করছিস ভাই, এটা ফাইনাল নয় তো! আন্দ্রে বলল, আমাকে চাপে রাখতে চাইছিল! একটু আলস্য ছিল, কেন জানি না। যাক গে, তবু তো প্রথম হয়েছি।’

    আর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী গ্যাটলিনের বিদায় নেওয়া প্রসঙ্গে? বোল্ট যথারীতি খুশিয়াল মেজাজে রসিকতা করলেন, ‘১০০ মিটারের সময়ই বুঝেছিলাম, বুড়ো হয়ে গিয়েছে!’

    আজ রাতেই তাঁর অষ্টম সোনার দৌড়। ১০০ মিটারে হ্যাটট্রিকের পর ২০০ মিটারে হ্যাটট্রিকের জন্য। তাঁকে চাপে রাখার আসল অ্যাথলিট আগেই বিদায় নেওয়ায় যে-সোনা পাওয়া, মনে করা হচ্ছে, এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা!

    No comments