• Breaking News

    রিও অলিম্পিকে ভারতীয় অ্যাথলিটদের পাশে দাঁড়ালেন বিরাট

    [caption id="attachment_1381" align="alignleft" width="300"]সেলফি। ম্যাচ জিতে হোটেল ফেরার পথে বিরাটের। ছবি— টুইটার সেলফি। ম্যাচ জিতে হোটেল ফেরার পথে বিরাটের। ছবি— টুইটার[/caption]

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক
    রিওতে ভারতীয় অ্যাথলিটদের ব্যর্থতা নিয়ে সব মহলে চলছে প্রবল সমালোচনা। পদক আসছে না কেন, তা নিয়ে চলছে বিতর্ক। বিরাট কোহলি পাশে দাঁড়ালেন রিও অলিম্পিকে নামা ভারতীয় অ্যাথলিটদের।
    সেন্ট লুসিয়াতে টেস্ট ও সিরিজ জেতার পর বিরাট বলেছেন, ‘যে সমস্ত অ্যাথলিট রিও অলিম্পিকে নামার সুযোগ পেয়েছে, তাদের পাশে থাকা উচিত। অনেক প্রতিবন্ধকতার মধ্যে দিয়ে তারা নিজেদের স্বপ্নটা সত্যি করেছে। আমাদের দেশে পরিকাঠামো মোটেও ভালো নয়। তা সত্ত্বেও একঝাঁক অ্যাথলিট লড়াই চালিয়ে গিয়েছে। এটাই অনেক বড় ব্যাপার।’
    রিও বিতর্কের মধ্যেই সাফল্যের মধ্যগগনে ভারতীয় ক্রিকেট টিম। ৬৪ বছর পর ইতিহাস গড়ল ওয়েস্ট ইন্ডিজে!
    ১৯৫২-৫৩ মরসুমে প্রথম বার ক্যারিবিয়ান সফরে যায় ভারত। তখন থেকে ধরলে এই প্রথম একই সিরিজের দুটি টেস্ট জিতল টিম ইন্ডিয়া। ইতিহাস তৈরির পর ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি কী বলছেন? ‘জামাইকা টেস্টের পর আমরা আমাদের ভুলত্রুটিগুলো শুধরে নিয়েছিলাম। সেই কারণেই এই ম্যাচে আমরা সেরাটা উজাড় করে দিয়েছি। জিতেছি টেস্টটা।’
    জামাইকার সাবাইনা পার্কে এই রকম পঞ্চম দিনেই টেস্ট জেতার সম্ভাবনা ছিল ভারতের সামনে। কিন্তু রস্টন চেজ টেস্ট বাঁচিয়ে দেন অতিমানবিক ইনিংস খেলে। ভারতীয় বোলাররা কার্যত কিছুই করতে পারেননি। বিরাটের কথায়, ‘ওই টেস্টে আমরা জিততে পারতাম। কিন্তু নিজেদের ভুলে সেটা হয়নি। ভালো ক্রিকেট খেলেছি। কিন্তু শেষ করতে পারিনি।’ সঙ্গে জুড়েছেন, ‘ভুল থেকেই তো মানুষ শিক্ষা নেয়! সেটা আমরা নিয়েছি বলেই এখানে পৌঁছতে পেরেছি।’
    সেন্ট লুসিয়াতে ঋদ্ধিমান সাহা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনের জুটিতে ২১৩ রানই ফারাক গড়ে দিয়েছিল দুই টিমের মধ্যে। দু’জনের যথেচ্চ প্রশংসা করেছেন বিরাট। বলেছেন, ‘এই সিরিজে ঋদ্ধি আর অশ্বিনের পার্টনারশিপটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। ওরা দু’জন চাপের মুখ থেকে টিমকে একটা ভালো জায়গায় পৌঁছে দিয়েছিল। যদি আরও দুটো উইকেট হারাতাম ওই সময়, তা হলে ম্যাচের ফলটা অন্য রকম হতেই পারত।’

    No comments