• Breaking News

    সানিয়া-বোপান্নারা লড়বেন এখন ব্রোঞ্জ জিততে

    Sania-Mirza-Rohan-Bopannaরাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    ফেডেরার নাম তুলে নিয়েছিলেন অলিম্পিক শুরুর আগেই। মার্টিনা হিঙ্গিসের সঙ্গে জুটি বেঁধে অলিম্পিকের মিক্সড ডবলসে খেলার প্রশ্নই ছিল না আর।
    সিঙ্গলসে সোনার লক্ষ্যে দৌড়চ্ছেন এখনও। ডবলসে তো সোনা জিতেই ফেলেছেন। রাফায়েল নাদালও তাই নাম তুলে নিয়েছিলেন মিক্সড ডবলস থেকে। মুগুরুজার সঙ্গে খেলার কথা ছিল স্পেনীয় তারকার।
    সেরা দুই জুটি এভাবে চলে যাওয়ার পর, সানিয়া মির্জা আর রোহন বোপান্নার সামনে সোনার সুযোগ এসে গিয়েছিল, পড়ে-পাওয়া চোদ্দ-আনা হয়ে। বাকি দু-আনা জোগাড় করতে হত, খেলে। মারে-হেদারকে হারিয়ে সেমিফাইনালে পৌঁছনর পরই অবশ্য তাঁদের মনে হয়েছিল, আক্রমণাত্মক হওয়া দরকার, ভারতীয় মিডিয়ার কাছে। কোর্ট তখন গৌণ, লিয়েন্ডার মুখ্য আক্রমণের লক্ষ্য।
    ফলে যা হওয়ার, হল। ভেনাস উইলিয়ামস-রাজীব রাম জুটির কাছে হার, সেমিফাইনালে। ‘ফোকাস’ নড়ে যাওয়ায়। প্রথম সেট ৬-২ জেতার পর যা বদলে যায় আত্মতুষ্টিতে। পারফরম্যান্সে প্রভাব পড়ে। দ্বিতীয় সেট ২-৬ হারেন। টাইব্রেকারে ৩-১০। বোঝাই যাচ্ছে, ম্যাচে তখন আর কোনও নিয়ন্ত্রণই ছিল না ভারতীয় জুটির। বোপান্নার সার্ভগুলো একটাও ঠিকঠাক পড়ছিল না। প্রথম সেটে নেটে যে ছোট ছোট টোকায় পয়েন্ট আনছিলেন বোপান্না, দ্বিতীয় সেট থেকেই উধাও। ‘ডবলসে এক নম্বর’ সানিয়ার ফোরহ্যান্ড উল্টোদিকে অনেক বেশি বয়সের ভেনাস উইলিয়ামস সহজেই ফেরালেন। রাজীব রাম তো অলিম্পিকের দু-সপ্তাহ আগেও নিশ্চিত ছিলেন না, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র দলে সুযোগ পাবেন। সেই তিনিও এখন অলিম্পিক সোনার দাবিদার!
    সানিয়া-বোপান্না, ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে যাঁদের দাবি ‘বোঝাপড়া অনন্য’, এখন লড়বেন ব্রোঞ্জের জন্য। টেনিসে সেমিফাইনালে হেরে গেলে আর একটি সুযোগ পাওয়া যায়, ব্রোঞ্জের লড়াইয়ের। ঠিক যেভাবে লিয়েন্ডার পেজ আজ থেকে ২০ বছর আগে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন, সেমিফাইনালে হেরে। তবে, লিয়েন্ডার খেলেছিলেন সিঙ্গলস আর হেরেছিলেন আন্দ্রে আগাসির কাছে, সেমিফাইনালে!
    লিয়েন্ডার তখন মোটেও সেরা ছিলেন না সিঙ্গলস র‍্যাঙ্কিংয়ে। ভাবাই যাবে না যা। তাঁর র‍্যাঙ্ক ছিল ১২৭। যাঁদের হারিয়েছিলেন পরপর – রিচি রেনেবার্গ (২৩), নিকোলাস পেরিরা (৭৫), টমাস এনকুইস্ট (১০), রেনজো ফুরলান (২৮)। বিশ্ব সিঙ্গলসে তিন নম্বর আগাসির কাছে হেরেছিলেন সেমিফাইনালে। ব্রোঞ্জ জেতার সময় হারিয়েছিলেন ব্রাজিলের ফেরনান্দো মেলিজেনিকে, প্রথম সেটে হেরে গিয়েও।
    ৪৪ বছর পর ভারত অলিম্পিক থেকে পেয়েছিল ব্যক্তিগত পদক। টেনিসে এখনও তা একমাত্র। দেখা যাক, ‘দুর্দান্ত বোঝাপড়া’ দিয়ে সানিয়া-রোহন দলগতভাবে আর একটি পদক আনতে পারেন কিনা, টেনিসে!

    No comments