• Breaking News

    ইস্টবেঙ্গলের বরদলুই অভিযান কাল শুরু

    শিবম দাস


    bordoloi-trophy

    ভারতরত্ন লোকপ্রিয় গোপীনাথ বরদলুই এর নামানুসারে ট্রফি। ১৯৫২ সালে সর্বপ্রথম অসম ফুটবল ফেডারেশন আয়োজন করেছিল এই প্রতিযোগিতা। সেই ধারা বজায় রেখে এ-বছরও গুয়াহাটির নেহরু স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বরদলুই ট্রফি। ভুটান,বাংলাদেশের মতো প্রতিবেশী দেশের বিভিন্ন ক্লাবের পাশাপাশি অসম ও সিকিমের মোট আটটি দল অংশ নেবে

    ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে এই ট্রফির সম্পর্কও অনেকদিনের ১৯৬৮ সালে অধিনায়ক পরিমল দে-র হাতে উঠেছিল বরদলুই। পরবর্তী কালে সুধীর কর্মকার, স্বপন সেনগুপ্ত, সুরজিৎ সেনগুপ্ত, কুলজিৎ সিং-এর অধিনায়কত্বে মোট পাঁচবার বরদলুই ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ইস্টবেঙ্গল

    যদিও এবারের পরিবেশ ও পরিস্থিতি দুটোই আলাদা। কলকাতা লিগের মাঝপথে দেশে ফিরে গেছেন প্রধান কোচ ট্রেভর মর্গ্যান ও সহকারী কোচ ড্রাইডেন । আইএসএল-এর কারণে পাওয়া যাবে না একঝাঁক তারকাকে। দল পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আকাদেমির কোচ রঞ্জন চৌধুরিকে। গুরবিন্দর, রবার্ট, নারায়ণ দাস, মেহতাবদের অভাব ঢাকতে দলে নেওয়া হয়েছে আকাদেমি থেকে ক্লিনটন, বিদ্যাসাগর সিংহ, প্রকাশ সরকার, মেহতাব সিং-দের। এছাড়াও লুইস ব্যারেটো, সামাদ, কৌশিক সরকার, দীপক সিং-এর পাশাপাশি তিন বিদেশি যথাক্রমে দং, ক্যালাম অ্যাঙ্গাস, আদিলেজাও গুয়াহাটিগামী বিমান ধরেছেন। পরিবর্ত সূচি অনুযায়ী, লালহলুদের প্রথম ম্যাচ ২২ সেপ্টেম্বর বঙ্গবি অগ্রগামীর বিরুদ্ধে। ২৪ সেপ্টেম্বর ইউনাইটেড সিকিম ও ২৬ সেপ্টেম্বর অসম স্টেট ইলেকট্রিসিটি বোর্ডের বিপক্ষে গ্রুপ লিগের বাকি দুটো ম্যাচ খেলতে হবে। অসম স্টেট ইলেকট্রিসিটি বোর্ড শেষবারের বরদলুই চ্যাম্পিয়ন।

    প্রতিযোগিতা নিয়ে কর্মকর্তারা উদাসীন হলেও প্রস্তুতিতে কোনও খামতি রাখতে চাইছেন না রঞ্জন-অভিজিৎ জুটি। মঙ্গলবার সাই-এর মাঠে দুবেলা অনুশীলন করেছিলে ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলাররা। সন্ধেবেলায় গ্রুপের অন্য দলগুলির ম্যাচ দেখতে স্টেডিয়ামে উপস্থি ছিলেন। বরদলুই নিয়ে অসম্ভব সিরিয়াস দং টেলিফোনে জানালেন,দলে অনেক জুনিয়র ফুটবলার, তাই আমাদের বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে। সহকারী কোচ অভিজিৎ মন্ডলের স্বরেও আত্মবিশ্বাস। যদিও ম্যাচ একদিন পিছিয়ে যাওয়ায় দুটি ম্যাচের মধ্যে ব্যবধান কমেছে বলে কিছুটা চিন্তিত গোলকিপার-কোচ। দলের স্টপগ্যাপ কোচ রঞ্জন চৌধুরির বক্তব্য,বরদলুই এবার আকাদেমির তরুণ ছেলেদের কাছে বড় সুযোগ। ওরা প্র্যাক্টিসে দং, ক্যালামের মতো ফুটবলারদের কাছে অনেক কিছু শিখতে পারবে, যা ভবিষ্যতে ওদের আরও ক্ষুরধার করে তুলবে।’

    মশলা আছে মজুত । শুধু বারুদে আগুন লাগানো বাকি । এবার দেখার, কলকাতা লিগ খেতাব টানা সাতবার জেতার রেকর্ড করার পর, বরদলুই জিতে পুজোর আগে শারদীয়ার উপহার নিয়ে ফিরতে পারে কিনা ইস্টবেঙ্গল

    No comments