• Breaking News

    ডাবল সেঞ্চুরি করে পার্থিবকে হারালেন ঋদ্ধি

     

    [caption id="attachment_2878" align="alignleft" width="300"]ডাবল সেঞ্চুরির পর ঋদ্ধিমান সাহা। ছবি— বিসিসিআই ডাবল সেঞ্চুরির পর ঋদ্ধিমান সাহা। ছবি— বিসিসিআই[/caption]

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক

    ভারতীয় দলে উইকেটের পিছনে নিজের জায়গা ফিরে পেতে এই লড়াইটাই ছিল আসল। দুই কিপারের কে জেতেন, কে হারেন, সে দিকে নজরও রেখেছিল ক্রিকেট মহল। ইরানি কাপের শেষে জয়ের হাসি বাংলার ঋদ্ধিমান সাহার মুখে। ডাবল সেঞ্চুরি করে অবশিষ্ট ভারতীয় দলকে জেতালেন পার্থিবের রনজি চ্যাম্পিয়ন গুজরাতের বিরুদ্ধে।

    দু’ইনিংসে গুজরাত করেছিল ৩৫৮ ও ২৪৬। চেতেশ্বর পূজারার অবশিষ্ট ভারতীয় দল প্রথম ইনিংসে করেছিল ২২৬। জিততে হলে চতুর্থ ইনিংসে পূজারাদের তুলতে হত ৩৭৯। একটা সময় ৬৩-৪ হয়ে গিয়ে ম্যাচ হারের আতঙ্কও ঢুকে পড়ে। ঋদ্ধির ২০৩ নট আউট আর পূজারার ১১৬ নট আউট সব চাপ কাটিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে দেয়। দু’জনে মিলে ৩১৬ রান যোগ করে দলকে জেতান। ৬ উইকেটে আসে জয়।

    ইরানি কাপের সঙ্গে নিজের নামও জুড়ে ফেললেন ঋদ্ধি। প্রথম উইকেটকিপার যিনি ডাবল সেঞ্চুরি করলেন ইরানিতে। এবং ঋদ্ধিই প্রথম ব্যাটসম্যান যিনি চতুর্থ ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি করলেন।



    বিশাখাপত্তনমে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট ম্যাচের আগে থাই মাসলে চোট পান বাংলার কিপার ঋদ্ধিমান সাহা। বদলি হিসেবে টিমে ঢুকে সাফল্য পেয়ে যান পার্থিব। ব্যাটে রানও পান। ফলে টেস্ট টিমে ঋদ্ধির জায়গা ক্রমশ নড়বড়ে মনে হচ্ছিল। সেই দিক থেকে দেখলে চোট সারিয়ে ফের ক্রিকেটে ফেরা ঋদ্ধির কাছে এই ম্যাচটা ছিল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ২৭২ বল খেলে ২৬টা চার ও ৬টা ছয় সহকারে সাজানো ইনিংসের জোরে সেই চাপটা কাটালেন ঋদ্ধি।

    দু’ইনিংসে পার্থিব করেছেন ১১ ও ৩২। প্রথম ইনিংসে ঋদ্ধি ১১ বল খেলে ০ করেছিলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁর ২০৩ নট আউট আপাতত পাল্টা চাপে রেখে দিল পার্থিবকেই।

    No comments