• Breaking News

    জুভেন্তাস এগিয়ে, ভার্ডির গোল ‘লাইফলাইন’ লেস্টারের

    পোর্তো ০   জুভেন্তাস ২


        (পিয়াকা ৭২, আলভেস ৭৪)


    সেভিয়া ২  লেস্টার ১


    (সারাবিয়া ২৫, কোরেয়া ৬২) (ভার্ডি ৭৩)


    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    এক রাতে ১৪ গোলের পরের রাতে দু-ম্যাচে পাঁচ গোল। লাল কার্ড, পেনাল্টি মিস। সব মিলিয়ে ইউরোপীয় রাত আবারও জমজমাট।

    রাতটা অবশ্য দুই পরাজিত গোলরক্ষকেরও। পোর্তোর ইকের কাসিয়াস ও লেস্টারের ক্যাসপার স্মাইশেল। কাসিয়াস এই বয়সেও কয়েকটি অবিশ্বাস্য ‘সেভ’ না করলে পোর্তো হারিয়ে যেতে পারত ফিরতি লেগের আগেই। আর, স্পেনে লেস্টারকে ম্যাচে বেশ ভাল জায়গায় রেখে দিলেন পিটার স্মাইশেলের ছেলে ক্যাসপার, সেভিয়ার কোরেয়ার পেনাল্টি বাঁচিয়ে।

    পোর্তো প্রথমার্ধেই দশজন হয়ে যাওয়ার পরও দমে যায়নি। ২৫ ও ২৭ মিনিটে পরপর দুবার হলুদ কার্ড দেখে বেরিয়ে যেতে হয়েছিল আলেক্স তেয়েস-কে। আলেক্স না-থাকা মানে মাঝমাঠের নিয়ন্ত্রণ হারানো, সঙ্গেই সেট পিস-এ গোলের সম্ভাবনা কমে যাওয়া। তারপরও নিজেদের মাঠে দমে যায়নি পোর্তো। গোল পাওয়ার জন্য সিরি আ চ্যাম্পিয়নদের অপেক্ষা করতে হয় ৭২ মিনিট পর্যন্ত।

    জুভেন্তাসের কোচ আলেগ্রির দুটি পরিবর্তনেরি বাজিমাত। ৬৭ মিনিটে কুয়াদ্রাদোকে তুলে পিয়াকাকে নামিয়েছিলেন, পিয়াকার গোল ৭২ মিনিটে। আর ৭৩ মিনিটে মাঠে এসে দানি আলভেসের প্রথম কাজই ছিল ৭৪ মিনিটে দ্বিতীয় গোল এনে দিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জুভেন্তাসকে নিয়ে যাওয়ার রাস্তা পরিষ্কার করা। নকআউট পর্বে অ্যাওয়ে ম্যাচ থেকে ২-০ ‘লিড’ নিয়ে ফেরার পর, ঘরের মাঠে তেয়েসহীন পোর্তোর কাছে তিনগোল খেয়ে জুভেন্তাসের বিদায় নেওয়ার সম্ভাবনা প্রায়-অলীক!

    রাতের অন্য ম্যাচ সম্পর্কে অবশ্য তেমন কিছু বলা সম্ভব নয়। সেভিয়া আরও এগিয়ে যেতে পারত পেনাল্টি থেকে গোলটা পেলে। লেস্টারের অধিনায়ক ওয়েস মর্গ্যান ফাউল করেছিলেন বক্সে। জোয়াকিন কোরেয়ার দুর্বল শট আটকাতে বিশেষ অসুবিধা হয়নি ক্যাসপারের। কিন্তু, সেভিয়া বারবারই ফাঁক খুঁজে পাচ্ছিল লেস্টার রক্ষণে। দু-অর্ধে দুটি গোল যদিও সেই দাপটের পূর্ণ প্রতিফলন নয়। উল্টে, লেস্টারকে গতবার ইপিএল জেতানোর অন্যতম নায়ক জেমি ভার্ডির সুযোগসন্ধানী গোল লেস্টারকে দিয়ে গেল ফিরতি খেলায় সর্বস্ব পণ করে নামার বড় সুযোগ। নিজেদের মাঠে ১-০ জিতলেই কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম আটে পৌঁছে যাবে লেস্টার!

    No comments