• Breaking News

    অপরাজিত থাকল না মোহনবাগানও

    চার্চিল ব্রাদার্স – ২      মোহনবাগান – ১


    (অ্যান্থনি ৬৫, চেস্টারপল ৭৪)    (প্রবীর ২৪)


    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    দশম রাউন্ডে ইস্টবেঙ্গল হারিয়েছিল অপরাজিত আখ্যা। মোহনবাগানও অনুসরণ করল তাদের চিরশত্রুদের, হেরে গেল চার্চিল ব্রাদার্সের কাছে, সেই দশম রাউন্ডেই। আই লিগে আর কোনও দলই থাকল না অপরাজিত।

    এএফসি কাপের মূলপর্বে পৌঁছে বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়ে গোয়া পৌঁছেছিল সঞ্জয় সেনের দল। প্রতিফলন পাওয়া গিয়েছিল ২৪ মিনিটে প্রবীর দাসের গোলে সবুজমেরুন এগিয়ে যাওয়ায়। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝি ৯ মিনিটে পরপর দুটি গোল খাওয়ার পর আর সমতা ফেরাতে পারেনি।

    তবে, তিলক ময়দানে ম্যাচের আরও বড় ব্যাপার ছিল ৮০ মিনিটে আলো নিভে যাওয়া। ৪১ মিনিট বন্ধ থাকার পর আবার খেলা শুরু হয়। এবং শেষ দশ মিনিটের পর পাঁচ মিনিট ইনজুরি টাইমও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, কাঙ্ক্ষিত আরও একটি গোল পায়নি মোহনবাগান। ফলে, ১০ ম্যাচে ২১ পয়েন্ট নিয়েই আপাতত ফিরতে বাধ্য হচ্ছে আই লিগে এই মুহূর্তে তৃতীয় স্থানে থাকা দল।

    এদুয়ার্দো, কাতসুমি, ডাফি ও সোনি নর্দে – চার বিদেশিকেই শুরু থেকে নামিয়েছিলেন সঞ্জয়। সোনির বাঁদিক থেকে দৌড়ে সেন্টারে মাথা ছুঁইয়ে প্রবীরের গোল জাগিয়েছিল আশা। গোয়া থেকেও তিন পয়েন্ট নিয়ে ফেরার। এমনকি প্রথমার্ধ শেষেও ওই গোলে এগিয়েই সাজঘরে ফিরেছিলেন সোনিরা।

    কিন্তু ৬৫ মিনিটে চার্চিল খেলায় ফেরে অ্যান্থনি উল্ফের গোলে। দ্বিতীয় গোলের সময় ব্র্যান্ডনের ক্রস ফেরাতে ব্যর্থ হন এদু আর হোডে চার্চিলকে এগিয়ে দেন চেস্টারপল লিংদো। ডেরিক পেরিরার প্রশিক্ষণে চার্চিলের উন্নতি চোখে পড়ছে এখন প্রতিটি রাউন্ডেই।

    এই হারের ফলে কি আই লিগ অভিযানে বড় ধাক্কা খেল মোহনবাগান?

    ধাক্কা তো বটেই। কিন্তু, লিগ তালিকায় শীর্ষে থাকা ইস্টবেঙ্গলও একটি ম্যাচে হেরেছে। অর্থাৎ, পরের ম্যাচগুলিতে আবার জয়ের ছন্দে ফিরলেই পয়েন্টের হিসাবে অন্তত একই জায়গায় থাকা সম্ভব মোহনবাগানেরও। ৮ মার্চ পরের ম্যাচে ঘরের মাঠে মুম্বই এফসি-র বিরুদ্ধে তিন পয়েন্ট পেলেই লড়াইয়ে ফিরে আসবেন সোনিরা।

    No comments