• Breaking News

    ২২ এপ্রিল ড্র হলে ৩০ এপ্রিল দু-মাঠেই ট্রফি!

    এক মাঠে আসল ট্রফি, অন্য মাঠে রেপ্লিকা, যাতে সেই রাতেই ট্রফি দিয়ে দেওয়া যায় চ্যাম্পিয়নদের


    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    আই লিগের শেষ পাঁচ ম্যাচের সূচি প্রকাশিত হল মঙ্গলবার। প্রত্যাশামতোই আইজল এবং মোহনবাগানের শেষ ম্যাচ একই দিনে, একই সময়ে, যথাক্রমে শিলং ও কলকাতায়। যদি অবশ্য ২২ এপ্রিল লিগ খেতাবের ফয়সালা না হয়ে যায় আইজলে!

    রাউন্ড ১৮, আই লিগ


    ২৯ এপ্রিল


    বেঙ্গালুরু – চার্চিল, সন্ধে ৭-০০


    মুম্বই এফসি – ইস্টবেঙ্গল, সন্ধে ৭-০০


    ৩০ এপ্রিল


    ডিএসকে শিবাজিয়ান্স – মিনার্ভা, বিকেল ৪-৩৫


    শিলং লাজং – আইজল, সন্ধে ৭-০০


    মোহনবাগান – চেন্নাই, সন্ধে ৭-০০


    ধরুন, ২২ এপ্রিল আইজল-মোহনবাগান ম্যাচ ড্র হল। অর্থাৎ, ৩০ এপ্রিল দুটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ তখন। সেই জন্যই তো একই সময়ে দুটি শহরে খেলা।

    সমস্যা এখানেই। সর্বভারতীয় ফুটবল সংস্থা জানিয়ে দিয়েছিল, লিগ খেতাবের ফয়সালা যে দিন হবে, মাঠেই ট্রফি দিয়ে দেওয়া হবে।

    এখন, মাঠেই ট্রফি দিতে গেলে, ট্রফিটাকে মাঠে তো থাকতে হবে!

    আবার, যখন দুটো দলই খেতাবের দাবিদার থাকছে এবং ভারতের দুটি শহরে খেলা, কী করে একটি ট্রফিকে দুটি শহরের দুটি মাঠেই রাখা সম্ভব? তা হলে তখন কি যে সন্ধ্যায় চ্যাম্পিয়ন হবে সেই সন্ধ্যায় ট্রফি পাবে না মোহনবাগান বা আইজল?

    এআইএফএফ-এর তরফে জানানো হয়েছে, আই লিগ ট্রফির একটি রেপ্লিকা তৈরি করা হবে সেক্ষেত্রে। যদি ২২ এপ্রিল ম্যাচ ড্র হয়ে যায়, দুটি মাঠেই রাখা থাকবে ট্রফি। একটি মাঠে থাকলে আসল ট্রফিটা, অন্য মাঠে রেপ্লিকা।

    কোন মাঠে আসলটা? সম্ভবত কলকাতায়, কারণ, ঘরের মাঠে খেলবে বলে মোহনবাগানের সম্ভাবনা সামান্য হলেও বেশি ধরা হতে পারে। লাজংয়ে তখন পাঠানো হবে রেপ্লিকা। বা, উল্টোটাও হতেই পারে। নিশ্চিত নয় কোনও কিছুই।

    যা নিশ্চিত, চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য ব্যক্তিগত যে মেডেলগুলো দেওয়া হয়, সেই রাতে অন্তত পাবেন না মোহনবাগান বা আইজলের ফুটবলাররা। ওই মেডেলগুলো পরে পাঠিয়ে দেওয়া হবে সংশ্লিষ্ট ক্লাবে।

    তবে, মোহনবাগান ২২ এপ্রিল জিতে চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেলে কোনও কিছুরই দরকার পড়বে না আর!

    No comments