• Breaking News

    কলকাতা লিগঃ টানা সপ্তম খেতাব জয়ের অভিযান শুরুর আগে মর্গ্যান, ‘চাপ তো মিডিয়ারই’!

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক

    east-bengal-logo

    টানা সপ্তম লিগ জয়ের লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার মাঠে নামছে ইস্টবেঙ্গল। ডবল হ্যাটট্রিক সম্পূর্ণ। নিজেদের রেকর্ড নিজেরাই ছুঁয়েছে। এবার লক্ষ্য পেরিয়ে যাওয়া। কোনও ভারতীয় বা ব্রিটিশ ক্লাবও যা করে দেখাতে পারেনি কলকাতা লিগের গত ১০৪ বারে।

    কিন্তু ট্রেভর জেমস মর্গ্যান মনে করছেন না আদৌ কোনও চাপে আছেন ইস্টবেঙ্গল ফুটবলাররা। ‘চাপটা তৈরি করে কলকাতার মিডিয়া। আমার দিক থেকে কোনও চাপ নেই। কোনও কর্তাও এমন কিছু বলেছেন বলে শুনিনি। চাপটা এখানে পুরোপুরি মিডিয়ার তৈরি। আমাদের কিছু লক্ষ্য আছে, অবশ্যই। প্রত্যেককে সেরাটা দিতে হবে, যেভাবে খেলার কথা ভাবা হয়েছে সেভাবে খেলতে চেষ্টা করতে হবে, নিজেদের সামর্থ অনুযায়ী যতটা সম্ভব সেগুলো মাথায় রেখেই খেলতে হবে। পরের ব্যাপারটা তো মাঠে।’

    কলকাতা লিগ অভিযান শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল কল্যাণীতে, ভবানীপুরের বিরুদ্ধে। আলাদা করে ভাবনা আছে কারণ ভবানীপুর মানে এখন মোহনবাগানের দ্বিতীয় দল যেহেতু ভবানীপুরের মালিকানাও বসু পরিবারের হাতেই। একটি ম্যাচ খেলে এক পয়েন্ট ভবানীপুরের হাতে। গত ছ’বারের চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে খেলার আগে অবশ্য ভবানীপুরও আত্মবিশ্বাসী, লড়তে।

    মর্গ্যান আশা করছেন কঠিন ম্যাচ হবে। ‘বিপক্ষে কারা বা তারা কেমন খেলে ভেবে লাভ নেই। নিজেদের খেলাটা ঠিকঠাক খেলতে হবে। কিছুটা সময় অবশ্যই যাবে বিপক্ষের কৌশল বুঝে নিতে। আর সব দলই বিপজ্জনক, সন্দেহ নেই। বেশ কঠিন ম্যাচ হবে, নিশ্চিত। জেতার জন্যই মাঠে নামব, সবসময়ই নেমেছি। জিততে পারলে ভাল লাগবে, এটুকুই।’

    তবে মরসুমের প্রথম ম্যাচ নিয়ে বিশেষ চাপে নেই, আবারও পরিষ্কার করে দিয়েছেন মর্গ্যান। ‘কোথায় মরসুম শেষ করছি, গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম ম্যাচের শেষে কোথায় থাকছি বা থাকব নিয়ে ভাবতে রাজি নই। শেষের অবস্থানই গুরুত্বপূর্ণ, যখন মরসুম-শেষেই দেখতে আগ্রহী, কোথায় পৌঁছচ্ছি।’ অনেকেই বলছেন, কাগজে-কলমে নাকি ইস্টবেঙ্গলই এবারের কলকাতা লিগের সেরা দল। মর্গ্যান তা-ও মানছেন না। ‘খেলাটা কাগজে হয় না, হয় মাঠে। সাদা দাগ পেরিয়ে ফুটবলাররা মাঠে ঢুকে পড়ার পর কী হবে, কেউ বলতে পারবেন না।’

    বেশ ফুরফুরেই ছিলেন মরসুমে প্রথম ম্যাচের আগের সকালে ইস্টবেঙ্গলের ব্রিটিশ কোচ মর্গ্যান যাঁর দ্বিতীয় ইনিংস শুরু হচ্ছে সবচেয়ে বেশি ৩৭বার কলকাতা লিগজয়ী ইস্টবেঙ্গলে, বৃহস্পতিবার।

    No comments