• Breaking News

    প্রথম অলিম্পিকে নামা কৃষ্ণনগরের চার্লস জিমেলিনকে ভুলে গিয়েছে বাংলা

    20f3b8d3-eb45-4e5b-a20a-818ab13b1587রাইট স্পোর্টস ডেস্ক
    জানেন কি, খাস কৃষ্ণনগরেরই এক তরুণ ২৪ বছর বয়সে ১৮৯৬ সালে শুরু হওয়া প্রথম আধুনিক অলিম্পিকে নেমেছিলেন?
    জানেন কি, বাংলার ওই ছেলেই ১৮৯৬ সালে আথেন্স অলিম্পিকে জিতেছিলেন ব্রোঞ্জ?
    অলিম্পিকে ব্যক্তিগত ইভেন্টে ভারতের প্রথম পদকজয়ী হিসাবে নর্ম্যান গিলবার্ট প্রিচার্ডের নাম সবাই বলে দেবেন। কিন্তু চার্লস জিমেলিন যে এই বাংলাতেই জন্মেছিলেন, শৈশব কেটেছে কৃষ্ণনগরে, তা ভুলে গিয়েছেন অনেকেই।
    ১৮৭২ সালের ২৮ মে কৃষ্ণনগরে জন্ম চার্লস জিমেলিনের। বাবা ছিলেন খ্রীস্টান মিশনারি। কৃষ্ণনগরে ধর্মীয় কাজের সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন দীর্ঘদিন। চার্লস অবশ্য খুব বেশি দিন কৃষ্ণনগরে ছিলেন না। শৈশব পার করার পরই পড়াশোনার জন্য লন্ডন চলে যান।
    অক্সফোর্ড কলেজে ক্রিকেট, ফুটবলের পাশাপাশি স্প্রিন্টার হিসেবে নাম ছিল। ১৮৯৬ সালের প্রথম অলিম্পিকে নেমেও পড়েন। গ্রেট ব্রিটেনের ইতিহাসে তিনিই প্রথম অ্যাথলিট যিনি অলিম্পিকের ১০০ মিটারে নেমেছিলেন। ১০০ মিটারে হিটে তৃতীয় হয়েছিলেন। তাই ফাইনালে ওঠা হয়নি। ৪০০ মিটারে ব্রোঞ্জ জেতেন চার্লস।
    নর্ম্যান প্রিচার্ডের গল্প শুরু তার পরের অলিম্পিকে, ১৯০০ সালে প্যারিসে। ২০০ মিটার ও ২০০ হার্ডলসে যিনি জোড়া রুপো জিতেছিলেন তিনি। প্রিচার্ডকে যতই ব্রিটিশ নাগরিক ধরা হোক, জন্ম খাস কলকাতাতেই। সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজের ছাত্র ফুটবলটাও খেলতেন চুটিয়ে। ভারতীয় ফুটবলে প্রথম হ্যাটট্রিকটাও তাঁর, শোভাবাজারের বিরুদ্ধে ১৮৯৭ সালের জুলাই মাসে। পাকাপাকি ভাবে আমেরিকা চলে যাওয়ার আগে আইএফএ-র সচিবও ছিলেন বেশ কিছু দিন।
    প্রিচার্ডের গল্প অনেকের জানা। তাঁরও আগে যে এই বাংলারই এক অ্যাথলিটের সঙ্গে নিবিড় যোগ ১৮৯৬ সালে আথেন্সে শুরু হওয়া প্রথম আধুনিক অলিম্পিকের, তা আর মনে নেই কারও।
    ইতিহাসের পাতায় হারিয়ে যায় অনেক কিছুই। মরচে ধরে পুরোনো স্মৃতিকথায়। না হলে চার্লস জিমেলিন আজও থেকে যেতেন বাঙালির অলিম্পিক আলোচনায়!

    No comments