• Breaking News

    ইডেনেও রিভার্স সুইং করাবেন সামি

    [caption id="attachment_1764" align="alignleft" width="300"]মহম্মদ সামি। ছবি— বিসিসিআই মহম্মদ সামি। ছবি— বিসিসিআই[/caption]

    ঐতিহাসিক টেস্ট ম্যাচে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ১০ উইকেট আলোচনায় থাকবে। ভারতীয় অফস্পিনারকে ছাপিয়ে গিয়ে রবীন্দ্র জাডেজা ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স, তাও।

    স্পিনার জুটির পাশে অবিশ্বাস্যজনক ভাবে বাংলার মহম্মদ সামিও ঢুকে পড়েছেন চর্চায়। তাঁর প্রিয় ইডেনে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট। তার আগে বলা হচ্ছে, পঞ্চম দিন সকালে মহম্মদ সামির ওই আগুনে স্পেলটা না থাকলে, নিউজিল্যান্ডকে শেষ করতে আরও সময় লাগত বিরাট কোহলির টিমের।

    কী ছিল ওই স্পেলে? রিভার্স সুইং! যা সামিকে পর পর দু’ওভারে এনে দিয়েছিল ওয়াটলিং ও ক্রেগের উইকেট। সোমবার ভারতের ৫০০তম টেস্ট ম্যাচটা জেতার পর সামি উচ্ছ্বসিত। নিজেকে নিয়ে। টিমকে নিয়ে। বিসিসিআই ওয়েবসাইটে দেওয়া ইন্টারভিউতে সামি বলেছেন, ‘সারা ম্যাচটাতে আমরা রিভার্স সুইং করানোর চেষ্টা করে গিয়েছি। কিন্তু হয়নি। শেষ পর্যন্ত পঞ্চম দিন সকালে যখন কোহলি আমাকে বল দিল, ২-৩টে ডেলিভারির পরই দেখলাম, যে রিভার্স সুইংটা চাইছিলাম, সেটা আসছে।’

    পুরোনো বলে বল করাতেই বেশি স্বস্তি বোধ করেন সামি? কেন? তাঁর কথায়, ‘পুরোনো বলে বল করার সময় অনেক বেশি কাজ করাতে পারি। বিশেষ করে রিভার্স সুইং শুরু হয়ে গেলে তো আর কথাই নয়। তখন আমার একটাই টার্গেট থাকে ব্যাটসম্যানকে এলবিডব্লিউ করা। গ্রিন পার্কে সেটাই হয়েছে।’

    ২০১৩ সালের নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তাঁর ঘরের মাঠ ইডেনে স্বপ্নের টেস্ট অভিষেক হয়েছিল সামির। সে বার দু’ইনিংস মিলিয়ে ১১ উইকেট নিয়েছিলেন বাংলার ডান হাতি পেস বোলার। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেটাই আবার করে দেখাতে চাইছেন তিনি। সামি বলেছেন, ‘ইডেন আমার কাছে অন্য রকম আবেগের। নিজের সেরাটা দিতে চাই ওখানে।’

    No comments