• Breaking News

    জয়ের রাস্তায় ফিরতে আগ্রহী দিল্লি, মুম্বই দু’দলই

     

    আইএসএল মিডিয়া রিলিজ

    delhi-mumbai

    দিল্লি ডায়নামোস এবং মুম্বই সিটি এফসি, দুই দলই চাইছে জয়ের রাস্তায় ফিরতে। মঙ্গলবার দিল্লির জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে, তৃতীয় ইন্ডিয়ান সুপার লিগের ১৭তম ম্যাচে।

    মু্ম্বইয়ের শুরুটা ছিল দুরন্ত। পরপর দুটি ম্যাচ জিতে, তৃতীয় ম্যাচে ড্র করে, অপরাজিত ছিল। কিন্তু শেষ ম্যাচে হেরে গিয়েছে কেরালা ব্লাস্টার্সের কাছে। দিল্লির শুরুটাও একই রকম। গতবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাইয়িন এফসি-কে প্রথম ম্যাচেই হারিয়েছিল আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে। কিন্তু পরের দুটি ম্যাচে যথাক্রমে কেরালা ব্লাস্টার্স ও নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ড্র করেছে।

    ম্যাচের আগের দিন সাংবাদিক সম্মেলনে দিল্লির কোচ জিয়ানলুকা জামব্রোতা বলেছেন, ‘নর্থইস্টের বিরুদ্ধে খুবই ভাল খেলেছিলাম। এবারের আইএসএল-এ নর্থইস্ট অন্যতম সেরা দল। তবুও প্রচুর সুযোগ তৈরি করেছিলাম। হ্যাঁ, ওই সুযোগগুলো কীভাবে আরও ভাল করে কাজে লাগানো যায়,অবশ্যই শিখতে হবে। তবে এই মুহূর্তে দলের স্ট্র্যাটেজি পাল্টানোর কোনও কারণ দেখছি না।’

    ইতালির হয়ে ২০০৬ বিশ্বজয়ী জামব্রোতা কিন্তু প্রথম তিন ম্যাচে দলে বিশেষ পরিবর্তন করেননি, যে-কথা বলা সম্ভব নয় মুম্বইয়ের কোচ সম্পর্কে। তাই, এই ম্যাচেও জামব্রোতার দলের নিউক্লিয়াস একই থাকবে, ধরে নেওয়া যায়।

    ‘ধারাবাহিকতা ধরে রাখার পক্ষে আমি’, বলেছেন জামব্রোতা,যাঁর দল এখনও আইএসএল-এ অপরাজিত।

    মুম্বই সিটি এফসি ম্যাচ খেলতে দিল্লি এসে পৌঁছেছে তাদের অধিনায়ক ও মার্কি ফুটবলার দিয়েগো ফোরলানকে ছাড়াই। ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ও আতলেতিকো দে মাদ্রিদের প্রাক্তন ফুটবলারের চোট এখনও সারেনি। কোচ আলেকজান্দ্রে গিমারায়েসের মনে হচ্ছে, ঘরের মাঠে পরের এফসি গোয়া ম্যাচের আগে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠবেন ফোরলান।

    তবে, অনুপস্থিত তারকাদের নিয়ে বিরাট ভাবছেন কোস্তা রিকান কোচ, এমনও নয়। কয়েকজন চোট পেয়ে বাইরে,কেউ আবার গিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক আসের দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে, চার ফুটবলার আছেন বেঙ্গালুরু এফসি-তে, যাঁরা প্রস্তুতি নিচ্ছেন এএফসি কাপের সেমিফাইনালে খেলার।

    গিমারায়েস মনে করছেন, ‘দিল্লি ডায়নামোস বেশ ভালই খেলছে। চিত্তাকর্ষক ফুটবল খেলতে চায় ওরা। একই সঙ্গে দেখিয় দিয়েছে, মাঠে অসম্ভব লড়াকুও। মনে হয়, বেশ ভাল খেলা দেখতে পাবেন দর্শকরা।’

    মুম্বইয়ের একটাই চিন্তা এখন, ৫ ম্যাচের মধ্যে চারটিই খেলতে হবে বাইরের মাঠে। তাই কোনও কিছুই সহজ হবে না,নিশ্চিত।

    ‘চারের মধ্যে তিনটে ম্যাচ বাইরে, তাই বাইরের মাঠে পয়েন্ট তুলে নেওয়ার গুরুত্ব বুঝতে হবে সবাইকেই। পুনেতে জিতেছিলাম আমরা, কিন্তু কেরলে আবার কোনও পয়েন্টই পাইনি। আশা করি এই ম্যাচটাতেও ভালই খেলব, পয়েন্ট পাব। আইএসএল কিন্তু চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে,প্রতিটি ম্যাচই বেশ কঠিন,’ বলেছেন গিমারায়েস।

    No comments