• Breaking News

    আবাস ফিরলেও ঘরের মাঠে জয় অধরাই পুনের

    এফসি পুনে সিটি ১ চেন্নাইয়িন এফসি ১
    (আনিবাল ৮২) (জেজে ২৮)


    14483642_10154507080303820_621402808_nআইএসএল মিডিয়া রিলিজ

    চতুর্থ ম্যাচে ঘরের মাঠে দ্বিতীয় ড্র। ঘরের মাঠে এখনও জয় অধরাই থেকে গেল পুনে সিটি এফসি-র। মুম্বই সিটি, নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে হেরেছিল। কেরালা ব্লস্টার্সের বিরুদ্ধে ড্রয়ের পর চেন্নাইয়িন এফসি-ও এক পয়েন্ট নিয়ে গেল বালেওয়াড়ি-পুনেতে এসে। শিব ছত্রপতি স্পোর্টস কমপ্লেক্সে চার ম্যাচে ২ পয়েন্ট পেল পুনে এবারের তৃতীয় ইন্ডিয়ান সুপার লিগে।
    পুনে সিটি আইএসএল-এ আগে কখনও হারায়নি চেন্নাইকে। তাঁদের কোচ আন্তোনিও আবাস চার ম্যাচের নির্বাসন কাটিয়ে তৃতীয় আইএসএল-এ প্রথমবার ডাগআউটে। ভাবা গিয়েছিল, স্পেনীয় কোচের সঙ্গেই ফিরবে নিজেদের মাঠে দলের ভাগ্যও। কিন্তু, শেষ পর্যন্ত যে এক পয়েন্ট নিয়ে ফিরতে পারল পুনে, সেটাই প্রাপ্তি। ৭৪ মিনিটে ডুডুর পায়ে সরাসরি আঘাতের জন্য রাবণনকে লাল কার্ড দেখানো উচিত ছিল রেফারির, যা তিনি দেখাননি।
    চেন্নাইয়িন পরপর দুটি ম্যাচে এফসি গোয়া এবং নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে জিতে পুনে এসেছিল। এগিয়েও গিয়েছিল গতবারের চ্যাম্পিয়নরা, জেজে-র দারুণ বুদ্ধিদীপ্ত গোলে। নিজেদের রক্ষণের বাঁদিক থেকে জেরি উঁচু বল পাঠিয়েছিলেন পুনের বক্সের বাইরে। জেজের সঙ্গে লড়াই এদুয়ার্দোর, বল পেয়ে যান জেজে। ভারতীয় স্ট্রাইকার সঙ্গে সঙ্গেই দেখে নেন পুনের গোলরক্ষক এদেল বেতে গোললাইন থেকে অনেকটা এগিয়ে আছেন। ডান পায়ের শট, তুলে দেন বেতের মাথার ওপর দিয়ে বেতের বাঁদিকের জালে। আইএসএল-এর তিন মরসুম মিলিয়ে তাঁর একাদশ গোল, যে কোনও ভারতীয় স্ট্রাইকারের পক্ষে সর্বোচ্চ। আর ওই গোলই তাঁকে এনে দিল ম্যাচের সেরার পুরস্কারও।
    পুনে তারপর নানাভাবে চেষ্টা করেও গোলের মুখ দেখতে পায়নি। ট্রাওরে বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু, চেষ্টা ফলপ্রসূ হয়নি। একবার তো পেনাল্টির আবেদন জানাতে গিয়ে হলুদ কার্ডও দেখলেন। জন আর্নে রিসের পায়ের টোকায় পড়ে গিয়েছিলেন বক্সে, রেফারি এত ছোট টোকায় পড়ে-যাওয়াকে ধরে নেন পেনাল্টি পাওয়ার চেষ্টা। শেষ পর্যন্ত পুনেকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন আনিবাল। ৮০ মিনিটে যিনি মাঠে এসেছিলেন ওবেরমানের জায়গায়।
    মাঠে আসার পরই ফ্রি কিক পেয়েছিল পুনে, বিপজ্জনক জায়গায়। হরমোনজ্যোৎ খাবরা এক মিনিটের মধ্যে পরপর দুবার দুটি ফাউল করেন, যথাক্রমে এদুয়ার্দো ও জোনাথনকে। প্রথম ফাউলের জন্য হলুদ কার্ড দেখেন, দ্বিতীয় ফাউল থেকে পাওয়া ফ্রি কিকে গোল শোধ! দুর্দান্ত ফ্রি কিক নিয়েছিলেন দু-মিনিট আগে মাঠে-নামা আনিবাল। বক্সের ঠিক বাইরে থেকে, ডানপায়ের শট। ঠিক সময় বাঁক নিয়ে নিচু হয়ে চেন্নাইয়িনের গোলরক্ষক কের-এর বাড়ানো হাত টপকে, পোস্টে লেগে, জালে আশ্রয় নিতেই সাইডলাইনে আবাসের পরিচিত ছবি, গোল-উদযাপনের।
    বাকি সময় আর কোনও গোল পায়নি কোনও দলই। ফলে, এবারের আইএসএল-এর রীতি মেনে আরও একটি ড্র। চেন্নাইয়িন উঠে এলে তৃতীয় স্থানে। মুম্বই সিটির সমান পয়েন্ট, ৮। কিন্তু, মুম্বইয়ের গোল পার্থক্য ০, চেন্নাইয়িনের ১। তাই, এখন তৃতীয় গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। আর পুনে সিটি ষষ্ঠ স্থানে উঠে এল, ৫ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে, কেরালা ব্লাস্টার্সের চেয়ে এক গোল বেশি করেছে বলে।

    No comments