• Breaking News

    ৩২০ উইকেট, প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে পেসার দিন্দাই সর্বোচ্চ!

    বাংলা‌: ৪০৪ (সায়ন ১৩৫, অগ্নিভ ৭০, পঙ্কজ ৫৫, সুদীপ ৫১, মনোজ ৪৫, সন্দীপ ৪-৯৬, বিনয় ৩-৭৫)
    পাঞ্জাব‌: ২৭১ (উদয় ৭৭, সন্দীপ ৪৬ অপরাজিত, দিন্দা ৫-৫৮, অমিত ৫-৭৬)
    বাংলা দ্বিতীয় ইনিংস: ১৮২-৫ (মনোজ ৬১ অপরাজিত, শ্রীবৎস ২৩ অপরাজিত, সিদ্ধার্থ কল ৩-৩০)


    ashok-dinda-121রাইট স্পোর্টস ডেস্ক
    শুরু করেছিলেন সায়নশেখর মণ্ডল। শেষ করলেন অমিত কুইলা ও অশোক দিন্দা!
    বাংলার দুই পেস বোলারের জুটিতে যুবরাজ সিংয়ের পাঞ্জাব শেষ হয়ে গেল মাত্র ২৭১ রানে। প্রথম ইনিংসে ১৩৩ রানে লিড নেওয়ার সুবাদে বাংলার স্বস্তিজনক জায়গায় থাকার কথা ছিল। দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যথর্থতায় তা নিয়েও থাকছে কিছুটা প্রশ্ন। তৃতীয় দিনের শেষে বাংলা করেছে ১৮২-৫। অধিনায়ক মনোজ তেওয়ারি ৬১ রানে ও শ্রীবৎস গোস্বামী ২৩ রানে ব্যাট করছেন। পাঞ্জাবের পক্ষে সিদ্ধার্থ কল ৩ উইকেট নিয়েছেন ৩০ রান দিয়ে। ৩১৫ রানে এগিয়ে রয়েছে বাংলা। রবিবার খেলার শেষ দিন।
    তৃতীয় দিন সকালটা অবশ্য বাংলার দুই পেস বোলারের। অভিজ্ঞ অশোক দিন্দা হিমাচলের বিলাসপুরের সবুজ উইকেটকে চমৎকার কাজে লাগালেন। আগের দিন নিয়েছিলেন ১ উইকেট। এ দিন তাঁর শিকার আরও চার। সব মিলিয়ে দিন্দার বোলিং-এর হিসাব, ২২.৩-৬-৫৮-৫। রনজিতে দিন্দা বাংলার সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী ছিলেন, এখন ৬৮ ম্যাচে তাঁর উইকেট সংখ্যা ২৪১। আর, প্রথম শ্রেণীর ম্যাচে বাংলার হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট পেয়ে গেলেন জোরে বোলার হিসাবে। রণদেব বসুর ৩১৭ উইকেট পেরিয়ে দিন্দার সংগ্রহে এখন ৩২০ উইকেট।
    দিন্দার পাশাপাশি বল হাতে বাংলার উজ্জ্বল মুখ খড়গপুরের এক তরুণ ক্রিকেটার অমিত কুইলা। আগের দিনই তিন উইকেট নিয়ে কোণঠাসা করে দিয়েছিলেন পাঞ্জাবকে। এ দিন সকালে প্রথম ধাক্কাটা দিলেন তিনিই, সর্বোচ্চ করা উদয় কলকে ৭৭ রানে ফিরিয়ে দিয়ে। ২৫ ওভার বল করে ৫ মেডেন সহ ৭৬ রান দিয়ে ৫ উইকেট। রণদেব বসুর হাত ধরে উঠে আসা ২১ বছরের এই পেস বোলারকে বাংলার আগামী দিনের ভবিষ্যৎ বলে ধরা হচ্ছে। নিদারুণ আর্থিক অনটনের মধ্যে দিয়ে বড় হয়েছেন অমিত। কিন্তু তাঁর প্রতিভায় সন্তুষ্ট টিম ম্যানেজমেন্ট।
    ১৩৩ রানের লিড নিয়ে নেমে বাংলা দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য বেশ চাপে পড়েছিল। অধিনায়ক মনোজ তেওয়ারি রুখে দাঁড়িয়েছেন। ৬১ রানে খেলছেন। সকালে অন্তত সাড়ে তিনশো রানে পৌঁছে দিতে চাইবেন অধিনায়ক, যাতে প্রথম ইনিংসে এগিয়ে যাওয়ার কারণে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করতে পারে বাংলা, দ্বিতীয় ম্যাচেও।

    No comments