• Breaking News

    আইএসএল-এ ইতালির গৃহযুদ্ধ!

    captureমার্কো মাতেরাজ্জির সঙ্গে বিশ্বকাপজয়ী ইতালি দলেই ছিলেন জিয়ানলুকা জামব্রোতা। হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগে তাঁকে স্বাগত জানিয়েছিলেন গতবারের আইএসএল জয়ী মার্কো। কিন্তু, মাঠে তাঁর প্রাক্তন সতীর্থের কাজ যতটা সম্ভব কঠিন করে তুলবেন, সন্দেহ নেই!
    ইতালির হয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বিশ্বকাপ জিতেছিলেন দুজনে, ২০০৬ সালে। কিন্তু মাতেরাজ্জি চেন্নাইতে চলে এসেছিলেন দুবছর আগে, আইএসএল শুরুর বছরেই। জামব্রোতা এবারই এসেছেন দিল্লি ডায়নামোসের কোচ হিসাবে। তাঁর পূর্বসূরি ব্রাজিলীয় রোবের্তো কার্লোসের জায়গায়।
    ‘ফুটবলার জামব্রোতাকে চিনি, কোচ জামব্রোতাকে চেনার সুযোগ হয়নি! ভারতে ওকে দেখে সত্যিই ভাল লাগছে কারণ এখানে ম্যানেজার হিসাবে নিজেকে উন্নত করে তোলার সুযোগ পাবে। সে জন্য আন্তরিক শুভেচ্ছা থাকল,’ বলেছেন মাতেরাজ্জি, বৃহস্পতিবার চেন্নাইয়িন বনাম দিল্লি ডায়নামোস ম্যাচের আগের দিন, সাংবাদিক সম্মেলনে।
    প্রথম ম্যাচে গতবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাইয়িনকে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল একটি পয়েন্ট নিয়েই। আইএসএল-এ প্রথমবারের চ্যাম্পিয়ন আতলেতিকো দে কলকাতার বিরুদ্ধে খেলার শেষ দিকে পেনাল্টি দিয়ে। দ্বিতীয় ম্যাচে খেতাব ধরে রাখার লক্ষ্যে তিন পয়েন্ট পাওয়ার লক্ষ্যেই নামবে চেন্নাই, নিজেদের মাঠে।
    ‘চাপ আর আবেশের মধ্যে ফারাক আছে। ধরতে হবে সেই বিভাজনটা। জিততে হবে এমন চাপ নেই বা আবারও চ্যাম্পিয়ন হতেই হবে, এমন ভাবনাও নেই। একবার তো চ্যাম্পিয়ন হয়েই গিয়েছি, গতবার। এখন সেই খেতাব ধরে রাখার কাজটা উপভোগ করতে হবে। সেটাই করব শেষ ম্যাচ পর্যন্ত। ফুটবলারদের ওপর আলাদা করে কোনও চাপ দিচ্ছি না তাই,’ মত মাতেরাজ্জির।
    হিরো আইএসএল শুরু থেকেই বিপক্ষকে পেনাল্টি দেওয়াটা চেন্নাইয়িনকে ভুগিয়েছে বেশ কয়েকবার। মাতেরাজ্জির মতে, দল শিখছে ক্রমশ। বিশেষ করে কমবয়সি ফুটবলাররা।
    ‘রেফারির সিদ্ধান্তের সঙ্গে সহমত। অবশ্যই পেনাল্টি ছিল। আর এটার কারণও অনভিজ্ঞতা। বয়স ১৮ হলে তেমনটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ফুটবল তো শুধু আর তিরিশ বছর বয়সিদের খেলা নয়! এই ভুলগুলো থেকেই শিখতে হবে, সতর্ক থাকতে হবে পেনাল্টি বক্সে,’ বলেছেন গতবারের চ্যাম্পিয়ন দলের কোচ।
    চেন্নাইয়ের মতোই রক্ষণকে ভরসা করেই এগোতে চাইবে দিল্লিও। তবে, গতবারের দুই নির্ভরযোগ্য ফুটবলারকে এবার আর পাচ্ছে না ডায়নামোস। জন আর্নে রিসে আর হ্যান্স মুল্ডার। দুজনেই এবার দল পাল্টে চলে এসেছেন চেন্নাইতে।
    জামব্রোতার মতে, ‘প্রাক মরসুম যেমন কাটিয়েছি, সন্তুষ্ট। বেশ ভালি গিয়েছে দিনগুলো। কিন্তু আসল পরীক্ষা শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার থেকে। মাঠে নামার পরই বোঝা যাবে, আসলে কতটা ভাল কেটেছে প্রাক মরসুম।’
    ‘আক্রমণে যাওয়ার সময় যেমন, রক্ষণের সময়ও ততটাই নিশ্ছিদ্র থাকতে হবে। তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ, জেতার মানসিকতা। এখানে এসেছি জিততেই,’ পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন ইতালীয় জামব্রোতা।

    No comments