• Breaking News

    আগ্রাসী হয়েই নামবে চেন্নাই: মাতেরাজ্জি

    chennaiyin-vs-kerala-blasters-live-streamআইএসএল মিডিয়া রিলিজ
    কেরালা ব্লাস্টার্সের কোচ স্টিভ কোপেলের এবার হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগে প্রথম মরসুম। কিন্তু এখনও জেনে গিয়েছেন ভারতের দক্ষিণাঞ্চলের দুই রাজ্যের ফুটবল-শত্রুতার ইতিহাস, কেরল বনাম চেন্নাই!


    দুই দলের মধ্যে অতীতে বেশ কিছু মনে রাখার মতো লড়াই দেখেছে আইএসএল। যেমন, প্রথমবার সেমিফাইনালে চেন্নাইয়িন এফসি-কে হারিয়ে ফাইনালে গিয়েছিল কেরল। কোপেল অবশ্য এই শত্রুতার প্রশ্ন উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, শনিবার চেন্নাইয়ের জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচ আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ লড়াই ছাড়া আর কিছু ভাবতে রাজি নন।


    ‘বলা হয়েছে অনেক কিছু। এই দুই দলের বিরোধিতার ইতিহাস নিয়ে। শুনেছি, জেনেছি। কিন্তু আমার দিক দিয়ে বলতে পারি, আরও একটা ম্যাচ হিসাবেই দেখতে চাইছি। গোটা ব্যাপারটাই পাল্টে গিয়েছে। নতুন মরসুম, নতুন দল, নতুন ফুটবলার, আর সম্পূর্ণ আলাদা পরিপ্রেক্ষিত। অতীতে কী হয়েছিল তার তুলনায় এখনকার চাহিদা একেবারেই ভিন্ন। কয়েক সপ্তাহ পরই আবার খেলব ওদের বিরুদ্ধে। আশা করব, যেন সেরা দলই জেতে, দুটি ম্যাচেই,’ বলেছেন কোপেল, ম্যাচের আগের দিন সাংবাদিক সম্মেলনে।


    গোয়াতে এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত জেতায় কেরলের আত্মবিশ্বাস একলাফে বেড়ে গিয়েছে অনেকটাই। প্রথমার্ধে গোয়া এগিয়েছিল ১-০। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে খেলায় দুর্দান্তভাবে ফিরে এসে কেরল ম্যাচ জিতেছিল ২-১। লিগ তালিকায় উঠে এসেছিল ৬ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে।


    কোপেল স্বীকার করেছেন, ওই জয় থেকে উদ্বুদ্ধ হয়েছেন ফুটবলাররা। পরের ম্যাচেও সেই ছন্দ ধরে রাখতে উদগ্রীব সবাই।


    ‘যে কোনও জয়ই খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ আইএসএল-এ সব দলই খুব কাছাকাছি। প্রায় মাঝামাঝি চলে এসেছে লিগ। কিন্তু শীর্ষে-থাকা দলের সঙ্গে সবার শেষে থাকা দলের পয়েন্টের পার্থক্য কখনও খুব বেশি নয়। গোয়ার বিরুদ্ধে জয়টা, মানসিক দিক দিয়েও খুবই গুরুত্বপূর্ণ,’ বলেছেন কেরলের ম্যানেজার।


    চেন্নাইয়িনের শেষ ম্যাচে অবশ্য তেমন কিছু ঘটেনি। উল্টে, এফসি পুনে সিটির বিরুদ্ধে এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত এক পয়েন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল। নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে জিতে অনেকটা উঠে গিয়েছিল লিগ তালিকায়। কিন্তু পুনের বিরুদ্ধে ড্র করে আবার গতি সাময়িক থমকে গিয়েছিল।


    পরপর দুটো ম্যাচ এখন ঘরের মাঠে খেলবে চেন্নাই। কোচ মার্কো মাতেরাজ্জি আছেন প্রথম মরসুম থেকেই। জানেন, আইএসএল-এ ম্যাচ জেতার গুরুত্ব কতটা। পয়েন্ট হারানো যে আদৌ কাম্য নয়, পরিষ্কার ইঙ্গিত দিয়েছেন।


    ‘ঘরের মাঠে এই দুটো ম্যাচ খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। এই লিগে একটা ম্যাচই জেতা কঠিন, পরপর দুটো ম্যাচ জেতা কঠিনতর। আমরা জানি, দুর্দান্ত দলের বিরুদ্ধে খেলব যাদের আক্রমণ দারুণ, রক্ষণেও ঠিকঠাক ভারসাম্য। পুনের বিরুদ্ধে জিতলে শীর্ষে থাকতে পারতাম, কিন্তু তেমন হয়নি। মানসিক দিক দিয়ে নিজেদের আবার উদ্বুদ্ধ করে মাঠে নামতে হবে কেরলের বিরুদ্ধে, আগ্রাসী মানসিকতা নিয়ে। আইএসএল এমন একটা লিগ যেখানে বিশ্রামের কোনও সুযোগ নেই,’ বলেছেন মাতেরাজ্জি।


    দাক্ষিণাত্য-ডার্বিতে দল ঠিক কী হবে, মাতেরাজ্জি অবশ্য এব্যাপারে কিছু আভাস দেননি। যদি দলের মার্কি ফুটবলার, লিভারপুলের প্রাক্তন কিংবদন্তি জন আর্নে রিসে-কে প্রথম এগারয় জায়গা দেন, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে পরিচিত প্রতিদ্বন্দ্বীকেই পাবেন রিসে। কেরালা ব্লাস্টার্সের হয়ে খেলবেন মার্কি অ্যারন হিউজ যিনি ফুলহ্যামের হয়ে খেলেছিলেন ২০০৭-০৮ মরসুমে, রিসে যখন খেলতেন লিভারপুলে।

    No comments