• Breaking News

    হ্যাটট্রিক, মুম্বইকে শীর্ষে তুললেন ফোরলান

    মুম্বই সিটি এফসি  ৫   কেরালা ব্লাস্টার্স ০


    (ফোরলান ৫, ১৪, ৬৩, কাফু ৬৯, গোইয়ান ৭৩)   


    আইএসএল মিডিয়া রিলিজ

    [caption id="attachment_2575" align="alignleft" width="300"]ছন্দে ফোরলান। ছবি - আইএসএল ছন্দে ফোরলান। ছবি - আইএসএল[/caption]

    দিয়েগো ফোরলানের গোলের উৎসব মুম্বই এরিনায়!

    মার্কি ফুটবলার কেন তিনি, বুঝিয়ে দিলেন উরুগুয়ের ফুটবলার। ঠিক সেই সময় যখন হয়ত সবচেয়ে জরুরি। তৃতীয় হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগের গ্রুপ পর্যায় এখন শেষের দিকে। তিন পয়েন্ট খুবই জরুরি হয়ে উঠেছে সব দলের কাছে। যারা পাচ্ছে, এগিয়ে যাচ্ছে প্রথম চারে পৌঁছনোর প্রাথমিক লক্ষ্যের দিকে, আরও একটু। মুম্বই সিটি এফসি-কে নিজেদের মাঠে দ্বাদশ ম্যাচে সেই প্রয়োজনীয় আত্মবিশ্বাস দিয়ে গেলেন অধিনায়ক ফোরলান।

    আইএসএল-এ এবার প্রথম হ্যাটট্রিক, মুম্বইকে এনে দিল বিরাট জয়, কেরালা ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে। সেই দল যার অন্যতম মালিকের নাম শচীন তেন্ডুলকার! লিগ তালিকায় দ্বিতীয় আর তৃতীয় স্থানে-থাকা দুটি দলের লড়াই একেবারেই একপেশে করে দিলেন সর্বোচ্চ স্তরের ফুটবলার। মুম্বই ১২ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে উঠে এল তালিকার শীর্ষে। ঘরের মাঠে মুম্বই ৪ ম্যাচে মাত্র দুটি গোল করেছিল এই মরশুমে। কেরল ম্যাচের পর সংখ্যাটা একলাফে ৭! আর পাঁচ গোল দিয়ে কেরলকে লিগ তালিকায় নামিয়ে দিল গোল পার্থক্যে চতুর্থ স্থানে।

    ৫ মিনিটে শুরু করলেন ফোরলান। বাঁপায়ে লব করে তাঁর পায়ে বল পাঠিয়েছিলেন  আর্জেন্তিনীয় দেফেদেরিকো। সন্দেশ ঝিঙ্গনকে পেরিয়ে মুম্বইয়ের গোলরক্ষক স্ট্যাককে পরাস্ত করে এবারের আইএসএল-এ নিজের তৃতীয় গোল করেছিলেন ফোরলান। উরুগুয়ের হয়ে ২০১০ বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতার দ্বিতীয় গোল দুর্দান্ত ফ্রি কিক থেকে। তাঁর বাড়ানো বল আটকাতে গিয়েই ফাউল করেছিলেন প্রতীক। বক্সের বাইরে থেকে ডানপায়ের জোরালো শট, আটকানোর কোনও সুযোগই ছিল না স্ট্যাকের। প্রথমার্ধে ২-০ এগিয়েই সাজঘরে গিয়েছিল মুম্বই।

    দু-গোল খেয়েও কেরল দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে আসবে, মনে হয়নি। কিন্তু যেটুকু সম্ভাবনা ছিল, শেষ করে দিলেন সেই ফোরলানই। ঝিঙ্গন বল বাইরে পাঠাতে চেয়েছিলেন। বল যায় কাফুর কাছে। ফোরলানকে ফাঁকায় ঠেলে দিয়েছিলেন ব্রাজিলীয় কাফু, হ্যাটট্রিকের সুযোগ হারাননি ফোরলান। এবারের আইএসএল-এ প্রথম হ্যাটট্রিক। পাঁচ গোল নিয়ে আলফারো, মার্সেলিনহো, হিউমদের সঙ্গে তিনিও এখন সর্বোচ্চ গোলদাতা। আর তাঁর তিন গোলের দুটির পাস যথাক্রমে এক আর্জেন্তিনীয় ও আর এক ব্রাজিলীয়র। দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলাররা সুদূর ভারতে এসেও দেখিয়ে যাচ্ছেন দাপট!

    তারপরও দু-গোল দিল মুম্বই। আবারও লাতিন আমেরিকা ‘কানেকশন’! দেফেদেরিকো বল বাড়িয়ে দিয়েছিলেন কাফুকে। ব্রাজিলীয় উঠতি তারকার বাঁপায়ের জোরালো শটের ধারেকাছে পৌঁছতে পারেননি স্ট্যাক। পঞ্চম গোল গোইয়ানের, রক্ষণকে মজবুত রেখে যিনি বিপক্ষ বক্সে আসেন কর্নারে হেডে গোলের সন্ধানে। শনিবার মুম্বইয়ের যেহেতু সবই নিখুঁত, দেফেদেরিকোর কর্নারে নিখুঁত হেডে গোইয়ান মুম্বইকে এনে দিলেন এবারের আইএসএল-এ সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়।

    সুনীল ছেত্রী সুযোগ পেয়েছিলেন, গোল আসেনি। সোনি নর্দে পরে নেমে একবার অফসাইডের ফাঁদে আটকে যান। তিনটি অ্যাসিস্ট-এ তাঁর নাম, দেফেদেরিকোও বার দুয়েক পেয়েছিলেন সুযোগ। সব সুযোগ থেকে তো আর ফুটবলে গোল হয় না! শেষদিকে হোসুর শট অমরিন্দর বাঁচান। কেরালা ব্লাস্টার্সকে মনেই হয়নি তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকা দল। এঙ্গেবার্ত-ঝিঙ্গনের রক্ষণ, মাঝমাঠে মেহতাবের রক্ষণাত্মক ভূমিকা এত দিন নির্ভরতা দিচ্ছিল। আসলে যে দিন ফোরলানরা এমন খেলেন, বিপক্ষ হয়ত এভাবেই সম্মোহিত হয়ে ভুলে যায় নিজেদের খেলা!

    No comments