• Breaking News

    অবশেষে আবাসকে হারালেন জিকো!

    এফসি পুনে সিটি ০    এফসি গোয়া ১


                              (রাফায়েল ৩২)


    আইএসএল মিডিয়া রিলিজ

    [caption id="attachment_2189" align="alignleft" width="300"]গোলের ফ্রি কিক নিচ্ছেন রাফায়েল। ছবি - আইএসএল গোলের ফ্রি কিক নিচ্ছেন রাফায়েল। ছবি - আইএসএল[/caption]

    অবশেষে আন্তোনিও আবাসকে হারালেন জিকো। অষ্টম প্রচেষ্টায়, তা-ও আবাসের ঘরের মাঠে। প্রতিযোগিতার দ্বিতীয়ার্ধে ৭ ম্যাচে ১৫-১৬ পয়েন্ট চাইছেন জিকো, সেমিফাইনালে পৌঁছতে। প্রথম ম্যাচে তিন পয়েন্ট এল রাফায়েল লুইজের ফ্রি কিকে। তৃতীয় ইন্ডিয়ান সুপার লিগে কোচের ঠিক করে দেওয়া লক্ষ্যে পৌঁছতে গতবারের রানার্স এফসি গোয়াকে অবশ্য বাকি ৬ ম্যাচের মধ্যে জিততে হবে অন্তত চারটি।

    গোলের আগে গোয়ার হোফ্রে-কে ফাউল করা হয়েছিল বক্সের ঠিক বাইরে,  করেছিলেন পুনের অগাস্তিন। বিপজ্জনক জায়গা। ব্রাজিলীয় রাফায়েলের ডান পায়ের দুর্দান্ত ফ্রি কিক। পুনের গোলরক্ষক এদেল বেতের কিছুই করার ছিল না। তাঁর ডানদিকের পোস্টের কোণ দিয়ে জালে বল আশ্রয় নেয়। ৮৫ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করাও উচিত ছিল রাফায়েলের। বেতে এগিয়ে এসেছিলেন, সহজেই তাঁকে কাটিয়ে নিয়ে বেরিয়েও গিয়েছিলেন। সামনে তখন রাহুল ভেকে একমাত্র। কিন্তু রাফায়েলের নিচু শট রাহুল হেড দিয়ে বের করে দেন। ফিরতি বল রোমিও আবার উঁচু করে ফেলেছিলেন বক্সে। বাইসাইকেল কিক নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন রাফায়েল, যা বাইরে যায়। অবশ্য, ২-০ হতেই পারত তার অনেক আগে, ৬০ মিনিটে। রবিন সিংয়ের সঙ্গে ওয়ান-টু করে বল পেয়ে গিয়েছিলেন হোফ্রে, সামনে একা বেতে, কিন্তু বাঁপায়ের শট বারের ওপর দিয়ে বাইরে।

    প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে পুনের পক্ষে লুকা গোয়ার রক্ষণভাগের ফুটবলারদের প্রায় সবাইকে পরাস্ত করে শট নিয়েছিলেন। কিন্তু কাট্টিমনি ফিরে গিয়েছিলেন গত মরসুমের ফর্মে। সহজেই বাঁচিয়ে দেন। তার আগে নারায়ণ দাসের ফ্রি কিকও ধরে নিয়েছিলেন কাট্টিমনি। ৭৫ মিনিটে লুকার দুরন্ত ফ্রি কিক অনেক দূর থেকে গোলে যাওয়ার ঠিক আগে সেই কাট্টিমনিই ডান হাতে ফিস্ট করে বের করে দিয়েছিলেন। আইএসএল-এর শুরুতে এবার তেমন ভাল না খেলায় জিকো কয়েকটি ম্যাচে তাঁকে বসিয়ে শুভাশিসকে খেলিয়েছিলেন। ফিরে আস্থার মর্যাদা দিলেন কাট্টিমনি।

    পুনে সুযোগ পেয়েছিল ৮১ মিনিটে ফ্রি কিক থেকে সমতা ফেরানোর। ঠিক সেই জায়গায় যেখান থেকে রাফায়েল এগিয়ে দিয়েছিলেন গোয়াকে। তাতোকে ফাউল করা হয়েছিল, সঙ্গে সঙ্গেই তাতোকে তুলে ব্রুনো আরিয়াসকে নামিয়েছিলেন আবাস। ফ্রি কিক কে নেবেন তা নিয়ে লুকার সঙ্গে খানিক মন কষাকষিও হয়। শেষ পর্যন্ত ফ্রি কিক নেন ব্রুনো এবং সোজা মানবপ্রাচীরে! গোয়াকে রক্ষণে নির্ভরতা দিয়ে ম্যাচের সেরা রিচার্লিসন।

    মুম্বই ফুটবল এরিনায় মুম্বই সিটি এফসি-কে হারানোর পর মহারাষ্ট্রেই পুনে সিটি এফসি-কে পুনের মাঠে হারানো। জিকো পেলেন দ্বিতীয় জয়, ৮ ম্যাচে মোট পয়েন্ট ৭। ঘরের মাঠে পুনের দুরবস্থা চলছেই। তৃতীয়বারও এক গোলেই হার। সাত আর আট নম্বরের লড়াই শেষে সপ্তম আর অষ্টম স্থানেই থাকল দুটি দল। শুধু দলদুটির জায়গা বদল হল। এখন ৭ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার শেষে পুনে!

    No comments