• Breaking News

    ধোনির নেতৃত্ব কেড়ে নেওয়া অসম্মানজনক, মত রায়নার

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    মহেন্দ্র সিং ধোনির মানসপুত্রই ছিলেন। এমএসডি-র আমলেই তাঁরও রমরমা। চেন্নাই সুপার কিংস-এর হয়ে তো বটেই, ভারতীয় দলেও। দরকারে ধোনি ‘ব্যাট’ করতেন তাঁর হয়ে, নির্বাচনী সভায়। এবার ধোনির হয়ে ব্যাট ধরলেন সুরেশ রায়নাও।

    খুশি নন রায়না তাই, একেবারেই। ‘যেভাবে রাইজিং পুনে সুপারজায়েন্টস-এর নেতৃত্ব থেকে ধোনিকে সরানো হয়েছে, চরম অসম্মানজনক। খুব হতাশ হয়েছিলাম শুনে। জাতীয় দলের হয়ে যেমন, আইপিএল-এও যখন যে দলের হয়ে খেলেছে, এমএস সেরাটাই দিয়েছিল। ওর মতো ক্রিকেটারকে সম্মান দিতেই হবে, প্রতিবার, যখন যেখানেই খেলুক। আর এটাও আমি বলছি না, গোটা বিশ্ব বলছে’, জানিয়েছেন রায়না, কলকাতায় সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে।

    কলকাতায় খেলতে এসেছে গুজরাত লায়ন্স। শুক্রবার আইপিএল-এ এবার এখনও পর্যন্ত তালিকার শীর্ষে থাকা দলের বিরুদ্ধে খেলা সবার শেষে থাকা দলের। আর সেই গুজরাতেরই অধিনায়কত্ব করছেন রায়না। ‘জাতীয় দলে এবং আইপিএল-এ দীর্ঘদিন ওর সঙ্গে একই সাজঘরে কাটানোর ফলে খুব ভালভাবেই জানি, কী অবস্থার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়, সময় যখন খারাপ যায়। তবু, ধোনির মতো ক্রিকেটার দাবি করে আরও অনেক বেশি সম্মান। যত দিন খেলবে, তত দিনই। যে কোনও পেশাতেই থাকুন না কেন, সে ক্রিকেট হোক বা সাংবাদিকতা, সবাই চায় প্রাপ্য সম্মানটুকু নিয়েই থাকতে। এমন অনেক ক্রিকেটার আছে যারা হয়ত খুব বেশিদিন খেলেনি। সম্মান চায় তারাও।’

    পুনে আইপিএল-এ সদ্য এসেছে। তাদের মালিক সঞ্জীব গোয়েঙ্কা আইএসএল ফ্র্যাঞ্চাইজি আতলেতিকো দে কলকাতারও অন্যতম মালিক। এবার ধোনি জাতীয় দলের একদিন ও টি টোয়েন্টির দায়িত্বও ছেড়ে দেওয়ার পর গোয়েঙ্কা তাঁর হাত থেকে পুনের নেতৃত্ব কেড়ে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথকে দিয়েছেন। যে-সিদ্ধান্তে উষ্মা রায়নার।

    অধিনায়কত্ব চলে যাওয়ার কারণেই কি ধোনির ব্যাটও কথা বলছে না সেভাবে যেভাবে বলতে অভ্যস্ত?

    রায়না মনে করছেন না তেমন। ‘খারাপ খেলছে না তো। ছন্দে আসছে, রান পেতে শুরু করেছে।২-৩ ম্যাচের মধ্যেই স্বমহিমায় ফিরবে। আরও বেশি বল খেলতে পারলেই হল। ওকে আরও ওপরে নামানো জরুরি। একই সঙ্গে বিশ্বের সেরা ফিনিশারদের অন্যতম’, বলেছেন রায়না।

    এবার আইপিএল-এ এখনও পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচে মাত্র ৬১ রান করেছেন ধোনি। স্ট্রাইক রেট ৮৭। সমালোচকরা রেয়াত করছেন না। সোশ্যাল মিডিয়াতেও ধোনিকে নিয়ে নানা কথা। কিন্তু, সমর্থন পেয়েছেন ধোনি এমন একজনের কাছে, যে বীরেনদ্র শেহবাগকে তিনি এভাবেই জাতীয় দল থেকে সরিয়ে দিয়েছিলেন। শেহবাগ পরিষ্কার জানিয়েছেন, ‘একটা আইপিএল-এর পারফরম্যান্স দিয়ে ধোনির মতো ক্রিকেটারের বিচার করা ঠিক নয়।’

    রায়নার কথাতেও সেই একই বক্তব্যের প্রতিধ্বনি। গুজরাতের অধিনায়ক স্বীকার করে নিয়েছেন, চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলার সময়টাই তাঁকে শিখিয়েছিল অনেক কিছু যার প্রভাব পড়েছিল আন্তর্জাতিক স্তরে তাঁর পারফরম্যান্সেও। ‘আট বছর ছিলাম। আইপিএল জিতেছি, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ টি টোয়েন্টি জিতেছি। কত ট্রফি। শুরু করেছিলাম যখন, বয়স কম। ধোনির মতো কিংবদন্তিদের পাশে থাকতে থাকতেই তো শিখেছিলাম।’

    নিজের দল তেমন ছন্দে নেই। আইপিএল-এ এবার পাঁচ ম্যাচে মাত্র একটি জয়। একমাত্র দল যারা পাঁচ বা তার বেশি ম্যাচ খেলে এবার জিতেছে মাত্র একটিই ম্যাচ। ঘরের মাঠে কলকাতাকে হারিয়েই কি শুক্রবার থেকে লিগ তালিকায় ওপরে উঠতে শুরু করবে রায়নার গুজরাত?

    No comments