• Breaking News

    আইজলে জেতার ইচ্ছে নিয়ে কলকাতায় হারল মোহনবাগান!

    মোহনবাগান - ০ মাজিয়া – ১


    (উমের ৩৪)



    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক



    মিনার্ভা ম্যাচের প্রথম একাদশে দশ পরিবর্তন! ম্যাচটাকে কতটা গুরুত্ব দিয়েছিলেন সঞ্জয় সেন, বোঝা সহজ!
    তাই, আই লিগের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে হারলেও এই হার নিয়ে বিশেষ মাথাব্যথা করতে চাইছে না মোহনবাগান, পরিষ্কার দল সাজানোতেই। কোচ তো বলেই দিয়েছিলেন, এই ম্যাচের ফলাফলের ওপর প্রতিযোগিতায় দলের ভবিষ্যৎ নির্ভর করবে না।
    তাই, ৩৪ মিনিটে গোল খেয়েও বাকি সময়ে সমতা ফেরাতে না পারলেও সবুজমেরুন গ্যালারির খুব বেশি হেলদোল থাকল না। আজহারকে ফাউল করে ৮৬ মিনিটে কোভাসেভিচ দ্বিতীয় হলুদ কার্ড (প্রথমবার দেখেছিলেন ৮২ মিনিটে) দেখে মাঠ থেকে বেরিয়ে যাওয়া আর শেষ মিনিট দশেক, গ্যালারি থেকে যেটুকু আওয়াজ উঠল।
    ১৪ মিনিটে বলবন্তের বাঁপায়ের শট, মাজিয়ার গোলরক্ষক পাভেল মাতিয়াসের আঙুলে লেগে বার ছুঁয়ে বাইরে যায়। পরে, প্রথমার্ধেই আরও একবার ৩৩ মিনিটে বলবন্ত চকিত টার্নে বক্সে ঢুকে শট নিয়েছিলেন, যা মাজিয়ার এক ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে ফিরে আসে। এ ছাড়া, শেষের দিকে কিছু আক্রমণ তুলে নিয়ে গিয়েছিল মোহনবাগান, যে সুযোগগুলো বলবন্ত-জেজেরা কাজে লাগাতে পারলে হয়ত একটা পয়েন্ট জুটত।
    কিন্তু, আই লিগের এই শেষ পর্যায়ে এসে কে-ই বা আর এএফসি ম্যাচ নিয়ে মাথা ঘামায়!
    গোলটা খেয়েছিল ৩৪ মিনিটে। কিংশুক দেবনাথ ছিলেন না জায়গায়। বক্সের বাইরে থেকে লুজ বল ধরে বক্সে ঢুকে এসে দূরের পোস্টে শট রেখে যান মহম্মদ উমের। শিবিনরাজের বিশেষ কিছু করার ছিল না। দ্বিতীয়ার্ধে ৬০ মিনিটে আলেকজান্দার রাকিচের ডান পায়ের শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। মোহনবাগানের রিডার্ভ বেঞ্চ-এর ফুটবলারদের বিরুদ্ধে মাজিয়া জিতলেও বিরাট দাপট ছিল, নিশ্চিতভাবেই বলা সম্ভব নয়।
    মরসুমে ঘরের মাঠে প্রথম হার। এএফসি কাপে গ্রুপে তিন ম্যাচের তিনটিতেই জিতে শীর্ষে আছে বেঙ্গালুরু এফসি। মাজিয়ার কাছে হেরে তিন ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে মোহনবাগানের আশা কমে গেল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার। ঘরের মাঠে বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে ম্যাচ বাকি আছে। ততদিনে আই লিগের ফয়সালা হয়ে যাবে, চির বিদেশিকেই খেলাবেন সঞ্জয় নিশ্চিত। কিন্তু, যেহেতু গ্রুপ থেকে শীর্ষে থাকা দলই যাবে পরের পর্বে, মোহনবাগানের সম্ভাবনা কমে গেল, এটা অবশ্য নিশ্চিত।
    হেরে জিততে চাওয়ার ইচ্ছেতে শেষ পর্যন্ত ২২ এপ্রিল কি জয়ী হবে মোহনবাগান?
    মোহনবাগান – শিবিনরাজ; সার্থক (রাজু ৬৩), কিংশুক, বিক্রমজিৎ জুনিয়র, শৌভিক (কাতসুমি ৭৩); প্রবীর, শৌভিক চক্রবর্তী, বিক্রমজিৎ, কিন লুইস (আজহার ৬৩); জেজে, বলবন্ত
    রেফারি – ভো মিন ত্রি (ভিয়েতনাম)

    No comments