• Breaking News

    সুমারিওয়ালাঃ কোচরা নিষিদ্ধ ড্রাগ দিলে কড়া শাস্তি হোক

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    যে সব কোচ প্লেয়ারদের নিষিদ্ধ ড্রাগ দিচ্ছেন তাঁদের কড়া শাস্তি হওয়া উচিত। মনে করেন আ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ার প্রেসিডেন্ট আদিল সুমারিওয়ালা। কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রক যে ডোপিং বিরোধী আইন আনার পরিকল্পনা করছে তাকেও স্বাগত জানিয়েছেন আদিল। বলেছেন, ‘বেশ কিছুদিন ধরেই ডোপিং বিরোধী আইন আনার কথা বলছিলাম। এখন সরকার এ বিষয়ে আইন প্রণয়ন করতে চাইছে। খুব ভাল। যে সব কোচ অ্যাথলিটদের ড্রাগ দিচ্ছেন তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। কড়া ব্যবস্থা না নিলে এ জিনিস বন্ধ হবে না।’

    ডোপিং বিতর্কের জেরে ২০০৫-এর আগের সব রেকর্ড মুছে ফেলার প্রস্তাব দিয়েছে ইউরোপীয় অ্যাথলেটিক্স সংস্থা। কিন্তু আদিলের মতে, এই সমস্যার কোনও সহজ সমাধান নেই। ‘বিষয়টা খতিয়ে দেখা দরকার। এমন নয় যে এখন আর ডোপিং হচ্ছে না। এখনও ডোপিং হচ্ছে। তবে কৌশল বদলে গেছে। তাই কোনটা ঠিক আর কোনটা ভুল তা বোঝা কঠিন। বিষয়টা নিয়ে আরও গবেষণা করা দরকার।’ আদিল জানিয়েছেন, রেকর্ড মুছে ফেলা নিয়ে ইউরোপীয় অ্যাথলেটিক্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রস্তাব এখনও আইএএএফ-এর কাছে পৌঁছয়নি। প্রস্তাবটা আইএএএফ কাউন্সিলের আলোচ্যসূচিতেও বিষয়টি নেই।

    সুমারিওয়ালা জানিয়েছেন, অঞ্জু ববি জর্জ যে অলিম্পিক্স পদকের দাবি জানাতে চলেছেন তাকে সমর্থন করবে এএফআই। ২০০৪-এর এথেন্স অলিম্পিক্সের লং জাম্পের ফল খতিয়ে দেখার জন্য আন্তর্জাতিক অলিম্পিক্স কমিটির কাছে আবেদন জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অঞ্জু। ওই প্রতিযোগিতায় সোনা, রুপো ও ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন রুশ অ্যাথলিট তাতিয়ানা লেবেদেভা, ইরিনা সিমাজিনা ও তাতায়ানা কোতোভা। পরে অন্য প্রতিযোগিতায় ড্রাগ টেস্টে ব্যর্থ হন তিনজনেই। প্রতিযোগিতায় পঞ্চম হয়েছিলেন অঞ্জু। তাঁর বক্তব্য, রাশিয়ানরা স্বচ্ছ উপায়ে পদক জেতেননি। তাই তদন্ত করে ওদের পদক কেড়ে নেওয়া উচিত। সুমারিওয়ালা জানিয়েছেন, ‘কিছু প্রমাণ আমরা জোগাড় করছি। দেখা যাক কী হয়।’

    হঠাৎই চলে গেছেন জ্যাভেলিনে নীরজ চোপড়ার বিচেশি কোচ গ্যারি ক্যালভার্ট। তবে নতুন কোচের নাম ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের কাছে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন সুমারিওয়ালা। শিগগিরই সমস্যা মিটে যাবে বলে তাঁর আশ্বাস। পিটি ঊষা ও অঞ্জু ববি জর্জকে এএফআইয়ের অবজার্ভার করতে চায় কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক। এই প্রস্তাবে ফেডারেশনের সমস্যা হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি। তাঁর মন্তব্য, ‘এটা ভাল পদক্ষেপ। আমরা স্বচ্ছ। আমাদের কোনও দুর্নীতি নেই। অবজার্ভাররা সবাইকে সেটা জানালে তো ভালই।’

    No comments