• Breaking News

    মজার খবর শুনতে ভালই লাগে: কল্যাণ মজুমদার

    শান্তনু ব্যানার্জি


    বেশ কয়েকদিন ধরে কলকাতার ময়দানে জোর জল্পনা খালিদ জামিলকে ঘিরে। আইজল এফসি-কে আই লিগে চ্যাম্পিয়ন করেছেন কোচ হিসাবে। ভারতীয় ফুটবলে তাই হঠাৎ কদরও বেড়ে গিয়েছে খালিদের। কয়েকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে, খালিদ নাকি কোচ হচ্ছেন ইস্টবেঙ্গলের।

    কিন্তু ক্লাবের তরফে কল্যাণ মজুমদার সেই সম্ভাবনাকে খারিজ শুধু নয়, হেসেই উড়িয়ে দিলেন! ‘মজার খবর শুনতে ভালই লাগে’, বললেন একান্ত নিজস্ব ভঙ্গিতে।

    আই লিগ এবং আইএসএল নিয়ে চলতি বিতর্ক সম্পর্কে কল্যাণ মজুমদার জানিয়েছেন, ‘আগামী মাসে এএফসি-র মিটিং রয়েছে কুয়ালালামপুরে। দেখা যাক কী হয়।’ ইস্টবেঙ্গল আইএসএল-এর জন্য ‘বিড-পেপার’ তুললেও ২৫ মে-র অন্তিম লগ্ন মেনে তা জমা দিচ্ছে না। যেহেতু ঐকমত্যে পৌঁছন যায়নি এবং কলকাতার দুই ক্লাবই অনড় রয়েছে নিজেদের অবস্থানে, দুটি ক্লাবই আইএসএল-এ খেলার জন্য এই মুহূর্তে কাগজপত্র জমা দিচ্ছে না।

    ইস্টবেঙ্গল অবশ্য বেশ কয়েকজন ফুটবলারকে সই করিয়ে সামনের মরসুমের দল গড়ার কাজ এগিয়ে রাখছে। সিরিয়ার আল আমনাকে সই করিয়ে ফেলেছে। আইজল থেকেই আরও দুই ফুটবলার লালরানচুলোভা ও ব্রেন্ডনের সঙ্গেও কথা পাকা। চার্চিলের মিডফিল্ডার রিচার্ড কোস্তার সঙ্গেও কথা পাকা, দাবি ক্লাবসূত্রে। সহকারী কোচ রঞ্জন চৌধুরী বলেছেন, ‘আই লিগ এবং আইএসএল নিয়ে টালমাটাল অবস্থায় দুই ধরনের লিগকে মাথায় রেখেই এগোনর কথা ভাবা হচ্ছে। হঠাৎ করে লিগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়ে গেলে যাতে কোনও অসুবিধায় পড়তে না হয়, সেই কারণেই আগে থেকে ভেবে এগোনর চেষ্টা।’

    শুধু তাই-ই নয়, আইজলের ঘর ভেঙে আরও অন্তত দুজন ফুটবলারের সঙ্গে কথা চলছে বলেই খবর ময়দানে। সঙ্গে, নিজেদের যুব দল থেকেও সাতজনকে সই করানোর ভাবনা।

    আইএসএল-এর জন্য যদি ফুটবলারদের নিলামে তোলা হয়, তার আগেই কি ক্লাবে যথেষ্টসংখ্যক এবং যোগ্য ফুটবলার ধরে রাখার চেষ্টায় ইস্টবেঙ্গল তড়িঘড়ি আসরে?

    No comments