• Breaking News

    আগে বড় খেতাবের আধখানাও জিতুক বিজেন্দ্র, লড়াই তারপর, জানালেন আমির

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    ‘ভারতের পেশাদার বক্সার বিজেন্দ্র সিং এখনও বড় কোনও খেতাবের আধখানাও জেতেনি। সম্মান ও স্বীকৃতি পেতে হলে ওকে এখনও অনেক দূর যেতে হবে।’ বিজেন্দ্রকে কার্যত কটাক্ষই করলেন ব্রিটেনের পেশাদার বক্সার আমির খান।

    বেজিং অলিম্পিক্সে বক্সিংয়ে ব্রোঞ্জ পদকজয়ী বিজেন্দ্র ২০১৫ সাল থেকে বেছে নিয়েছেন পেশাদারি বক্সিংকে। পরপর ৮টি ম্যাচে হারিয়েছেন প্রতিদ্বন্দ্বীদের। উল্টোদিকে বক্সিংয়ে দু-বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আমির খান ব্রিটেনের সবচেয়ে কমবয়সী বক্সার হিসাবে এথেন্স অলিম্পিক্সে জিতেছেন রুপো। পেশাদারি জগতে আমির খানের রেকর্ড ৩১-৪।

    আমিরের দাবি, এখন তিনি যদি বিজেন্দ্রর সঙ্গে লড়লে সেটা তাঁর পক্ষে পিছিয়ে যাওয়া হবে। এর আগে আমিরকে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আহ্বান করেছিলেন বিজেন্দ্র। প্রস্তাব ফিরিয়ে আমিরের মন্তব্য, ‘বিজেন্দ্র এখনও হইচই ফেলতেই পারেনি। জেতেনি কোনও বড় খেতাব, বা তার আধখানাও! তাই বিজেন্দ্রর সঙ্গে আমার লড়াই লোকে দেখতেই চাইবে না।’

    আমিরের আরও মন্তব্য, ‘ওর সঙ্গে লড়লে উল্টে আমাকেই সমালোচনা শুনতে হবে। বিজেন্দ্র ভারতীয়, আমার পাকিস্তানি ব্যাকগ্রাউন্ড, এটা রাজনৈতিকভাবে উত্তেজনাকর। তবে ইউরোপ বা আমেরিকার বাজারে কাটতি হবে না। বিজেন্দ্র আগে খেতাব জিতুক, পেশাদার বক্সিংয়ে নাম করুক, তারপর নয় লড়াই হবে।’

    বিজেন্দ্রর ১০ বছর আগে পেশাদারি জগতে এসেছেন আমির। পেশাদার বক্সার হিসাবে তাঁর প্রথম লড়াই ২০০৫ সালে। বক্সিং ম্যাচ কীভাবে বেচতে হয়, আমির সেটা ভালই জানেন। তিনি মনে করেন, বক্সার হিসাবে বিজেন্দ্রর স্বীকৃতি বাড়লে, লড়াই থেকে প্রচুর টাকা আসবে। আমিরের মন্তব্য, “পুরোটাই তো ব্যবসা। আমরা হাত মেলাব, লড়ব, টাকা রোজগার করব, তারপর চলে যাব।’

    ১৭ বছর বয়সে প্রথম এশীয় বংশোদ্ভূত বক্সার হিসাবে এথেন্স আলিম্পিক্মে পদক জিতেছিলেন আমির। সেটা ছিল আলিম্পিক্সে ইতিহাস সৃষ্টিকারী ঘটনা। সেই ঘটনার স্মৃতিচারণে আমির বলেন, ‘এর আগে আমাকে কেউই চিনত না। এশীয়দের পাওয়াই যেত না। পদক জিতে রাতারাতি বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিলাম। লড়াইয়ের সময় এশীয়রা তো বটেই, শ্বেতাঙ্গরাও আমাকে সমর্থন করেছিল।’

    সম্প্রতি সুপার বক্সিং লিগের প্রোমোশনে সংক্ষিপ্ত সফরে মুম্বইয়ে এসেছেন আমির। এই লিগে বিজেন্দ্রকেও টানতে চান তিনি। নিজেকে বিজেন্দ্রের ফ্যান হিসাবেই পরিচয় দিলেন। তবে তিনি চান, তাঁর সঙ্গে লড়াইয়ের আগে বক্সার হিসাবে আরও খ্যাতি বাড়ুক বিজেন্দ্রর।

    সূত্র – ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

    No comments