• Breaking News

    সৌরভের ৬ উইকেট, মোহনবাগানকে হারিয়ে ফাইনালে ইস্টবেঙ্গল

    ঋদ্ধির উইকেট বিরাট প্রাপ্তি, জানালেন সৌরভ মণ্ডল


    শান্তনু ব্যানার্জি


    সিএবি পরিচালিত প্রথম ডিভিশন লিগের  সেমিফাইনালে ১৪৬ রানে মোহনবাগানকে হারিয়ে ফাইনালে ইস্টবেঙ্গল। অন্য সেমিফাইনালে টাউন ক্লাব ১ উইকেটে হারিয়েছে ভবানীপুরকে। ফলে, ফাইনালে লালহলুদ শিবির মুখোমুখি হবে টাউন ক্লাবের।

    ক্রিকেটের ডার্বি ম্যাচে ৭২ রানে ৬ উইকেট নিয়েছেন লালহলুদের সৌরভ মণ্ডল। ১৬ ওভার হাত ঘুরিয়ে ২ টি মেডেনসহ। বড় ম্যাচের নায়ক হয়ে উঠলেন তিনি, তৃতীয় দিন।

    এই ৬ উইকেটের মধ্যে ভারতীয় ক্রিকেট দলের উইকেট কিপার ঋদ্ধিমান সাহার উইকেটও রয়েছে। ৩৬ রানে সৌরভের বলে কভারে সৌম্য বসুর হাতে ক্যাচ দিয়ে ঋদ্ধি সাজঘরে ফিরে এসেছিলেন, খেলার দ্বিতীয় দিন।

    নিজের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট সৌরভের কথায়, ‘ঋদ্ধিমান সাহা বর্তমানে জাতীয় দলের নিয়মিত সদস্য। ওর উইকেটটা খুবই দরকারি ছিল। কারণ, ঋদ্ধি উইকেটে থাকলেই রান বাড়ত। আর মোহনবাগানের জেতার চান্সও বাড়ত ততটাই। তাই ওর উইকেটটা বিরাট প্রাপ্তি। ঋদ্ধি আউট হয়ে যাওয়ায় মোহনবাগানের সমস।আ বেড়েছিল।’

    বোলিংয়ের সময় তাঁর প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল, বেশি রান না দেওয়া। বলেছেন, ‘মোহনবাগানের ব্যাটসম্যানরা চালিয়ে খেলতে ভালবাসে। আমাদের পরিকল্পনা ছিল, ওদের স্ট্রোক নেওয়ার বেশি জায়গা দেব না। অরিন্দম ঘোষ একমাত্র ধরে খেলতে পারে। অনুষ্টুপ মজুমদার, দেবব্রত ঘোষ, শুভময় দাস, ঋদ্ধিমান – সবাই স্ট্রোক প্লেয়ার। আমাদের পরিকল্পনা ছিল লুজ বল কম দিয়ে রান ওঠার গতি আটকে রাখা।’

    ফাইনালে পৌঁছনোয় সমর্থকদের প্রত্যাশার চাপ সামলাতে হবে এখন ইস্টবেঙ্গলের ক্রিকেটারদের। সৌরভ অবশ্য তেমন ভাবতে নারাজ। ‘কলকাতা ময়দানে মোহনবাগান আর ইস্টবেঙ্গলে খেললে প্রত্যাশার চাপ থাকবেই।’ লাল হলুদের অধিনায়ক অর্ণব নন্দী বোলার সৌরভের  প্রশংসায় পঞ্চমুখ। ‘দুর্দান্ত বল করল সৌরভ। ওর ৬ উইকেট আমাদের সাহায্য করল সহজেই জিততে।’

    সেমিফাইনালে প্রথম দু’দিন নানাবিধ বিতর্ক হলেও শেষ দিন নতুন কোনও বিতর্ক আর হয়নি, ক্রিকেটের বড় ম্যাচে!

    No comments