• Breaking News

    আইজল ১, ইস্টবেঙ্গল ২, সেমিফাইনালেই ডার্বি?

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    খেলা শুরুর আগেই জানা হয়ে গিয়েছিল, দুটি দলই পৌঁছে গিয়েছে ফেডারেশন কাপের সেমিফাইনালে। শুধু দেখার ছিল, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন কোন দল। ৯০ মিনিট শেষে অবস্থান পাল্টাল না। গোলশূন্য ম্যাচের পর আই লিগজয়ী আইজল শেষ করল শীর্ষে থেকে। ইস্টবেঙ্গল দ্বিতীয়। অর্থাৎ, সেমিফাইনালে কলকাতা-ডার্বি হওয়ার প্রভূত সম্ভাবনা আগামী রবিবার!

    গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে গেলে জিততে হত ইস্টবেঙ্গলকে। চেষ্টা যে একেবারেই করেনি, এমনও নয়। কিন্তু, যাবতীয় ব্যর্থতা গোলমুখে। উইলিস প্লাজা আই লিগে বারাসতে বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে ঠিক যতটা ব্যর্থ ছিলেন, খুঁজে পেয়েছিলেন সেই বুটটাই বোধহয়। হ্যাটট্রিকও করে ফেলতেই পারতেন। বাস্তবে পেলেন না একটাও গোল! ওয়েডসন আনসেলমে-কে ৮০ মিনিটে তুলে নেওয়ার পর যতটা রাগ দেখালেন, সেই রাগের সামান্য বহিঃপ্রকাশও মাঠে দেখাতে পারলে গ্রুপ শীর্ষে থেকেই শেষ করতে পারত ইস্টবেঙ্গল। লালহলুদের হাইতি-র ফুটবলার কিন্তু মাঠের বাইরের কারণেই বেশিবার খবরে আসছেন!

    এক দিনের ব্যবধানে খেলতে হচ্ছে। চোটের সংখ্যা বাড়ছে রোজ। আইজলের কোচ খালিদ জামিল তাই দ্বিতীয় সারির দল নামিয়েছিলেন, সেমিফাইনালে পৌঁছনো নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায়। দ্বিতীয় ম্যাচের দলে মোট এগার পরিবর্তন! অর্থাৎ, সম্পূর্ণ নতুন এগারজনকে নামিয়ে দিয়েছিলেন খালিদ, সেমিফাইনালে প্রথম এগারর সবাইকে পর্যাপ্ত বিশ্রাম দিতে।

    ইস্টবেঙ্গলও বাধ্য হয়েছিল দলে রদবদল আনতে। গুরবিন্দর সিং ও মেহতাব হোসেন দুটি করে হলুদ কার্ড দেখে নির্বাসিত ছিলেন। ইভান বুকেনিয়া চোটের জন্য বিশ্রামে। অর্ণব মন্ডল সুযোগ পেয়েছিলেন তাই। সঙ্গে তরুণ সামাদ আলি মল্লিক। গত ম্যাচে জোড়া গোলের নায়ক রবিন সিংকেও শুরুতে নামাননি সহকারী কোচ রঞ্জন চৌধুরী। পাঁচ দিনে তিন ম্যাচ বড় কারণ যেমন, আরও বড়, সেমিফাইনালের আগে প্রয়োজনীয় বিশ্রাম।

    তবু, ইস্টবেঙ্গলের তাগিদ ছিল। আই লিগে তাদের অপরাজিত আখ্যা ঘুচেছিল পাহাড়ে আইজলে খেলতে গিয়ে। তারপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি, ক্রমশ নেমেছিল। ঘরের মাঠে, আই লিগের প্রথম ম্যাচেও আইজলকে হারাতে পারেনি ট্রেভর জেমস মর্গ্যানের দল। এবার সুযোগ এসেছিল কটকের বারবাটি স্টেডিয়ামে। কিন্তু, গোল করতে না পেরে এবং আইজলের গোলরক্ষক লালমপুইয়া তিনকাঠির তলায় দুর্ভেদ্য থাকায় আইজলের দ্বিতীয় দলকেও হারাতে ব্যর্থ আবার। ম্যাচের সেরা বিকাশ জাইরুর ক্রসগুলো সত্যিই মাঠে মারা গেল!

    একটাই সুবিধা গ্রুপ এ-র দুটি দলের। ফেডারেশন কাপের দুটি সেমিফাইনালই যেহেতু রবিবার, একটা দিন বাড়তি বিশ্রাম জুটবে আইজল ও ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলারদের। আসল লড়াইয়ের আগে সামান্য সুবিধা তো বটেই!

    No comments