• Breaking News

    ওয়েঙ্গারের কাছে অবশেষে লিগে হার মোরিনিওর

    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    চেলসির বিরুদ্ধে লিগ ও কাপের অ্যাওয়ে ম্যাচে গোল পায়নি হোসে মোরিনিওর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটির বিরুদ্ধে পায়নি। পেল না আর্সেনালের বিরুদ্ধেও। ০-২ হেরে গেলে ইতিহাদে, শাকা ও ওয়েলবেকের গোলে। সামনের সপ্তাহে টটেনহ্যাম হটস্পারের বিরুদ্ধে আরও একটি অ্যাওয়ে ম্যাচ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। সেখানেও কি গোল পাবে মোরিনিওর ইউনাইটেড?

    তবে, মোরিনিও পেয়ে গিয়েছেন তাঁর চূড়ান্ত লক্ষ্যে পৌঁছনোর ‘অন্য’ রাস্তা। ইউরোপা লিগ জিততে পারলে সরাসরি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ছাড়পত্র পাবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। দেশের লিগে আপাতত প্রথম চারে শেষ করা দুরূহ। যুক্তি বলছে, ইউরোপা লিগের খেতাবকেই লক্ষ্য করে এগোনো জরুরি। সেই লক্ষ্যেই এখন মোরিনিও।

    তাই আর্সেনালের বিরুদ্ধে খেলায় ভালেন্সিয়া, বেইলি, ব্লিন্ড, পোগবা, লিনগার্ড ও র‍্যাশফোর্ডকে বিশ্রাম দিয়েছিলেন, যাঁরা সবাই খেলেছিলেন সেলতা ভিগোর বিরুদ্ধে, ইউরোপা সেমিফাইনালে। আবারও খেলবেন, আগামী বৃহস্পতিবার। সুতরাং, বৃহত্তর ছবিটার দিকে তাকিয়ে মোরিনিও তুলনায় কম-শক্তিশালী দল নামিয়ে ভুল করেছিলেন কিনা, জানতে ইউরোপা ফাইনালে আয়াক্স আমস্টারডমের বিরুদ্ধে সম্ভাব্য ফাইনাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতেই হবে।

    আপাতত, আর্সেনালের কাছে হেরে এবং আর্সেন ওয়েঙ্গারের কাছে লিগে প্রথমবার হেরে, ইপিএল-এ পঞ্চম স্থানেই থাকল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৩৫ ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে। আর্সেনালের ৩৪ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট। আছে ষষ্ঠ স্থানে। প্রথম চারে শেষ করার সুযোগ আসতে পারে বাকি চারটি ম্যাচেই জিতলে। ওয়েঙ্গারের আর্সেনালের যা লক্ষ্য থেকেই যায়, অধুনা। চেলসি (৩৪ ম্যাচে ৮১) খেতাব জিতেই গিয়েছে প্রায়। বাকি তিন জায়গার জন্য ইউনাইটেড ও আর্সেনালের সঙ্গে লড়াইয়ে যথাক্রমে টটেনহ্যাম (৩৫ ম্যাচে ৭৭), লিভারপুল (৩৬ ম্যাচে ৭০) ও ম্যানচেস্টার সিটি (৩৫ ম্যাচে ৬৯)।

    No comments