• Breaking News

    ইউরোপা জিতে চ্যাম্পিয়নস লিগে ইউনাইটেড

    উই উইল নেভার ডাই, শোক জয় করে গাইল ম্যানচেস্টার, পেল প্রথম ইউরোপা লিগ খেতাব


    রাইট স্পোর্টস ডেস্ক


    স্টকহোম-এ আয়াক্স আমস্টারডমকে ২-০ হারিয়ে ইউরোপা লিগ জিতে নিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। একই সঙ্গে চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ স্তরে খেলার যোগ্যতা অর্জন করল। প্রথমার্ধে পল পোগবা ও দ্বিতীয়ার্ধে হেনরিখ এমখিতারিয়ান-এর গোলে।

    ম্যাচের ১৮ মিনিটে পোগবার গোল, আয়াক্সের থ্রো-ইন থেকে বল পেয়ে। তাঁর শট ডিফেন্ডার দাভিনসন সানচেজের পায়ে লেগে দিক পরিবর্তন করে গোলরক্ষক আন্দ্রে ওনানাকে বিভ্রান্ত করে জালে জড়িযে যায়। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই কর্নার থেকে গোল করেন এমখিতারিয়ান। ম্যাচে আয়াক্সের তরুণ ফুটবলাররা, যাঁদের গড় বয়স ছিল মাত্রই ২২ বছর ২৮২ দিন এবং যাঁদের মধ্যে ছ’জনের বয়স ছিল ২১-এর কম, হয়ত ফুটবলটা ভালই খেলেছিলেন। কিন্তু, হোসে মোরিনিও তাঁর স্বভাবসিদ্ধ বিদ্রুপাত্মক ঢঙে বলেছেন ম্যাচ শেষে, ‘ফুটবলে বেশ কয়েকজন কবি আছে। কিন্তু, মুশকিল হল, কবিরা বেশি খেতাব জেতে না!’

    মোরিনিওর প্রশিক্ষণে এ-মরসুমে লিগ কাপ ও কমিউনিটি শিল্ড জিতেছিল ইউনাইটেড। কোচ হয়ে এসে প্রথম বছরেই তিনটি ট্রফি। মোরিনিও জানিয়েছেন, ‘যে কোনও ভাবে চ্যাম্পিয়নস লিগে পৌঁছনোই ছিল আমাদের লক্ষ্য। পেরেছি, চ্যাম্পিয়নস লিগে ফিরেছে ইউনাইটেড। আর ক্লাব ফুটবলের সব ট্রফিই এখন ক্লাবের দখলে। মরসুমের শুরু থেকেই আমরা কঠোর পরিশ্রম করেছি। তার ফল পাওয়া গেল শেষে।’

    ‘গোল করে লিগ এনে দিয়েছি দলকে। পেরে গর্বিত। লোকে বলছে, এই মরসুমে আমরা খারাপ খেলেছি। কিন্তু এই পুরস্কারটা বিরাট। এখন আমাদের হাতে তিনটে ট্রফি। সুতরাং সমর্থকরা উপভোগ করুন এই সাফল্য’, ইউরোপা জিতে প্রতিক্রিয়া পোগবার।

    ম্যাচ শুরুর আগে ম্যানচেস্টারে জঙ্গি হানায় নিহত ২২ জনের স্মৃতিতে এক মিনিটের নীরবতা পালন করা হয়। তারপরেই ম্যানচেস্টার, ‘উই উইল নেভার ডাই’, গানের সুরে গলা মেলান দর্শকরা। বুঝিয়ে দেন, জঙ্গি হামলা ম্যানচেস্টার শহরের স্পিরিটকে দমিয়ে রাখতে পারবে না। ‘সারা বিশ্বে এখন দুঃখজনক ঘটনা ঘটছে। আমাদেরও লক্ষ্য স্থির ছিল। ইংল্যান্ডের জন্য খেলেছি, ম্যানচেস্টারের জন্য খেলেছি, জঙ্গি হানায় যাঁরা মারা গেছেন তাঁদের জন্যও খেলেছি এবং জিতেছি’, বলেছেন ফরাসি পোগবা।

    ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে ওয়েন রুনিকে মাঠে নামিয়েছিলেন কোচ। হয়ত ইউনাইটেডের জর্সিতে শেষ ম্যাচ রুনির। কিন্তু, ট্রফিহাতে উৎসবে কমতি ছিল না একফোঁটাও।

    No comments