• Breaking News

    প্রথম লিগ খেতাবের খুব কাছে গুরপ্রীত

     

     আইএসএল মিডিয়া রিলিজ


    বেঙ্গালুরু, ১৪ মার্চ – ইউরোপ থেকে এবারই ভারতে ফিরে মরসুম যথেষ্টই ভাল গিয়েছে গুরপ্রীত সিং সান্ধুর। অবিস্মরণীয় মরসুম হয়ে উঠতেই পারে ফাইনালেও জিতলে।

    বেঙ্গালুরু এফসি-র গোলরক্ষক আগে কখনও কোনও শীর্ষস্তরের লিগে ১৮ ম্যাচ খেলেননি তাঁর ফুটবল-জীবনে। চতুর্থ হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগে তাঁর পারফরম্যান্স প্রমাণ করে দিয়েছে, ভারত থেকে নরওয়েতে গিয়ে ঠিক কতটা উপকৃত হয়েছিলেন তিনি।

    আগে কখনও কোনও লিগ খেতাবও জেতেননি গুরপ্রীত। সবচেয়ে কাছাকাছি গিয়েছিলেন যখন ইস্টবেঙ্গল রানার্স হয়েছিল আই লিগে। এবার, ২৬ বছর বয়সী গোলরক্ষকের নিজের ফর্ম এবং দল বেঙ্গালুরুর ছন্দ বুঝিয়ে দিয়েছে, প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার যথেষ্ট সম্ভাবনা আছে তাঁর।

    [caption id="attachment_4135" align="alignleft" width="906"] দিল্লির কালু উচেকে গোল করতে দিলেন না গুরপ্রীত। ছবি - আইএসএল[/caption]

    ‘এখনও জিতিনি। তাই জিতলে কেমন অনুভূতি হবে, এক্ষুনি বলতে পারব না। তবে চ্যাম্পিয়ন হলে অবশ্যই দুর্দান্ত লাগবে কারণ আগে কখনও চ্যাম্পিয়ন হইনি যে! প্রথম থেকেই আমাদের লক্ষ্য ছিল একটা একটা করে ম্যাচ ধরে খেলা। এখনও সেই লক্ষ্যেই এগোতে চাইছি,’ বলেছেন এখন ভারতের সেরা গোলরক্ষক।

    হিরো আইএসএল-এ অভিষেকেই বেঙ্গালুরুর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন গতি পেয়েছে গুরপ্রীতের পারফরম্যান্সেও। সেমিফাইনালের দ্বিতীয় পর্বে নিজেদের মাঠে এফসি পুনে সিটির বিরুদ্ধে খেলার শুরুতেই পুনেকে গুরুত্বপূর্ণ অ্যাওয়ে গোলের সুবিধা নিতে দেননি দুরন্ত রিফ্লেক্সে। প্রতিযোগিতাতেও সোনার গ্লাভস পাওয়ার অন্যতম দাবিদারও তাই তিনিই।

    নরওয়ের স্ট্যাবায়েক এফসি-তে খেলে উপকৃত হয়েছেন, সন্দেহ নেই। রিজার্ভ লিগে নিয়মিত খেলতেন, প্রতি সপ্তাহেই। আর সেখানে নিয়মিত ম্যাচ খেলার ফলে বাড়তি আত্মবিশ্বাসে এখন টগবগে তিনি।

    চতুর্থ হিরো আইএসএল-এ গোলরক্ষকরা বারবারই চোখ টেনে নিলেও, গুরপ্রীত তাঁদের মধ্যেও এগিয়ে রয়েছেন সবার থেকে। জামশেদপুর এফসির সুব্রত পাল, চেন্নাইয়িন এফসির করণজিৎ সিং এবং মুম্বই সিটি এফসির অমরিন্দর সিং বেশ ভাল খেলেছে প্রতিযোগিতা জুড়েই। কিন্তু গুরপ্রীতের মতো নজর কাড়েননি কেউই।

    তিনকাঠির তলায় তাঁর নির্ভরযোগ্য উপস্থিতির কারণেই বেঙ্গালুরুর রক্ষণ মাত্র ১৭ গোল হজম করেছে ২০ ম্যাচে। আইএসএল-এ অংশগ্রহণকারী দলগুলির মধ্যে যে-রেকর্ড সবচেয়ে ভাল। সাতটি ম্যাচে একটিও গোল খায়নি বেঙ্গালুরু। গুরপ্রীত বোধহয় সেরা ম্যাচ খেলেছিলেন ভুবনেশ্বরে যেখানে প্রায় একার হাতেই জামশেদপুর এফসিকে গোল করতে দেননি তিনি।

    শনিবার ফাইনালে চেন্নাইয়িন এফসির বিরুদ্ধেও একই রকম পারফরম্যান্স দেখাতে চাইবেন গুরপ্রীত। আর যদি তিনি তা পারেন, জীবনে প্রথমবার লিগজয়ীর খেতাবও জিতবেন, নিশ্চিত!

    No comments